পশ্চিমবঙ্গ

পঞ্চায়েত ভোটে শোনা যাবে চড়াম-চড়াম বোল? কী বললেন কেষ্ট?

কলকাতা, ৯ সেপ্টেম্বর – “কেষ্ট যতদিন ফিরে না আসছে, লড়াই আরও তিনগুণ বাড়বে। বীরের সম্মান দিয়ে কেষ্টকে জেল থেকে বের করে আনতে হবে। এই মানসিকতা নিয়ে তৈরি থাকুন। বীরভূম জেলা হারতে শেখেনি, ওটা লাল মাটির রাস্তা, লাল মাটির দেশ।” বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোরে তৃণমূলের সমাবেশ থেকে ফের অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) পাশে দাঁড়িয়ে আওয়াজ তুলতে দেখতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee)। এদিকে ইতিমধ্যেই রাজ্যে বেজে গিয়েছে পঞ্চায়েত ভোটের (Panchayat Election) দামামা। বছর ঘুরতেই ভোট। কিন্তু এবারেও কী বীরভূমের বেতাজ বাদশা অনুব্রতর মুখে শোনা যাবে চড়াম-চড়াম বোল? অনুব্রতর সাফ দাবি, “এখন অনেক দেরি। আগে ভোট ডিক্লেয়ার হোক। তারপর বলব।”

এবারেও ভোটেও পঞ্চায়েত ভোটে কী দেখা যাবে বেনজির হিংসার ছবি? অনুব্রতর দাবি, “ভদ্রভাবে ভোট হবে”। পঞ্চায়েত ভোট প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অনুব্রত বলেন, “পঞ্চায়েত ভোট এবারে নিরপেক্ষ হবে। আমরা চাইছে লড়তে। ভদ্রভাবে ভোট হবে, সুস্থভাবে ভোট হবে। একুশের বিধানসভা তো হয়েছে। কোনও অশান্তি হয়েছে? না। কোনও ভোটেই কোনও অশান্তি হয়নি।” পঞ্চায়েত ভোটের আগে কী বের হতে পারবেন অনুব্রত? প্রশ্নের উত্তরে অনুব্রতর সাফ জবাব, “ওটা আমার হাতে নেই। ওটা আইনের ব্যাপার।”

এদিকে বর্তমানে বেশ খানিকটা স্বস্তিতে অনুব্রত ওরফে কেষ্ট মণ্ডল। মঙ্গলকোট রাজনৈতিক সংঘর্ষ মামলাতে বেকসুর খালাস হয়েছেন তিনি। অনুব্রতর দাবি, “সব মামলাতেই বেকসুর খালাস হব। পুরোটাই সময়ের অপেক্ষা। আমি অন্যায় করিনি। তাই বেকসুর খালাস হলাম।” এদিকে অনুব্রতর জামিনের বিরোধীতা করে বারবার প্রভাবশালী তত্ত্বকে সামনে এনেছে সিবিআই। তদন্তকারীদের আইনজীবীদের তরফে দাবি করা হয়েছে তিনি বাইরে বের হলে তথ্য-প্রমাণ বিবৃত করতে পারেন অনুব্রত। এদিন এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অনুব্রত বলেন, “ওদের কথা ওরা বলছে। আমার বিরুদ্ধে কিছু পায়নি। এটা সবাই ভাল করেই জানে। আইন আইনের পথে চলবে। আমার খামার বাড়ি দেখিয়েছে। টিভি-৯ দেখিয়েছে। আমার খামর বাড়ি কেনা ১৯৯৫ সালে। ৬ হাজার টাকা প্রতি বিঘাতে কেনা।”

সূত্র: টিভিনাইন
আইএ/ ৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button