বরগুনা

জমির বিরোধের জেরে বাবার কবর ভাঙলেন ছেলে

বরগুনা, ০৩ সেপ্টেম্বর – বরগুনার তালতলী উপজেলায় ভাই-বোনদের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বাবার কবরে ভাঙচুর চালালেন ছেলে।

শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) এমন এক ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার দিকে বরগুনার তালতলীর মালিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৩০ বছর আগে বড়বগী ইউনিয়নের মালিপাড়া এলাকার নসু হাওলাদার মারা যান। মৃত্যুর পর তার জমিজমার মালিক হন সাত ছেলে মেয়ে। তবে ওই জমি নিয়ে বড় ভাই আলম হাওলাদারের সঙ্গে অন্য ভাই-বোনদের বিরোধ চলে আসছে।

স্থানীয়রা আরও জানান, নিয়ম অনুযায়ী সব ভাই-বোনদের মধ্যে সম্পত্তি ভাগ করে দেওয়ার কথা। কিন্তু বড় ভাই আলম তাতে রাজি হননি। স্থানীয় গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে সালিশের মাধ্যমে ভিটে-বাড়ির জমি ভাগ করে দেওয়া হয়েছিল। ওই সময় বড় ভাই আলমের আপত্তির কারণে কৃষি জমি ভাগ করে দেওয়া সম্ভব হয়নি। এরপর থেকে বিভিন্ন সময় জমি ভোগ দখল নিয়ে তাদের ভাই-বোনদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে।

এ ঘটনার জেরে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে মেজো বোন পারুলের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় আলমের। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি তার বাবার কবর ভাঙচুর করেন।

এ বিষয়ে আলম হাওলাদারের মেজো বোন পারুল বলেন, আমি বাবার সম্পত্তির ভাগ চাইতে গেলে ভাই আলম আমাকে লাথি মেরে ফেলে দেন। বাবা কেন বেশি সন্তান জন্ম দিলো এ অপরাধে বাবার কবরে জুতা দিয়ে পেটান। পরে বড় হাতুড়ি দিয়ে কবরটি ভাঙচুর করেন। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।

অভিযুক্ত আলম হাওলাদার বলেন, জমিজমা নিয়ে আদালতে আমাদের মামলা চলছে। রাগে বাবার কবর ভেঙেছি।

তালতলী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button