পশ্চিমবঙ্গ

পশ্চিমবঙ্গে আল কায়দার সদস্য গ্রেপ্তার, ছিল বাংলাদেশেও নশকতার পরিকল্পনা

কলকাতা, ০৩ সেপ্টেম্বর – ভারতের পশ্চিমবঙ্গ থেকে জঙ্গি সংগঠন আল কায়দার এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শনিবার পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা সংলগ্ন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বন্দর এলাকা ডায়মন্ড হারবার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পশ্চিমবঙ্গ থেকে গ্রেপ্তার ওই যুবকের নাম শেখ সমীর হোসেন ওরফে শেখ কামাল। গ্রেপ্তারের পর সমীরকে বারাসাত আদালতে তোলা হলে বিচারক ১৪ দিনের এসটিএফ হেফাজতের নির্দেশ দেন।

মুম্বাই পুলিশের স্পেশাল টাস্কফোর্সের সহযোগিতায় এক গোপন অভিযানে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের স্পেশাল টাস্কফোর্স (এসটিএফ) ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে। এসটিএফ সূত্রেব খবর, ওই যুবকের বাড়ি ডায়মন্ড হারবারের বন্দর সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা।

প্রতিবেশী ও স্বজনদের বরাত দিয়ে এসটিএফ জানায়, বর্ধমানের একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করত সমীর। পরে মেদিনীপুরের আরেক মাদ্রাসা থেকে উচ্চশিক্ষা নেন তিনি। ডায়মন্ড হারবারে ফিরে এসে স্থানীয় আব্দুলপুরের একটি মসজিদে ইমামের কাজ করতেন ওই যুবক।

এসটিএফের দাবি, প্রাথমিক তদন্তে আল কায়দা জঙ্গি গোষ্ঠীর সঙ্গে ওই যুবকের যুক্ত থাকার প্রমাণ মিলেছ। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশে আল কায়দার হয়ে বিভিন্ন নাশকতার ছক কষছিল তারা। এমনকি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও অবাবে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছিলেন তারা।

জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে মুম্বাই এসটিএফ তাদের গতিবিধির উপরে নজর রাখছিল। এমনকি পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের এসটিএফ শাখাকেও তাদের ব্যাপারে সতর্ক করা হয়। শেষ পর্যন্ত শনিবারের যৌথ অভিযানে তাকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয় এসটিএফ।

এর আগে গেল সপ্তাহে কলকাতা সংলগ্ন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার হাড়োয়া এবং শাসন এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাফল্য পায় এসটিএফ। ওই অভিযানে আল কায়দার জঙ্গি সন্দেহে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাদের জিজ্ঞাসাবাদে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ডায়মন্ড হারবারের বাসিন্দা শেখ সমীর হোসেন ও পারুলিয়া কোস্টাল থানা এলাকার বাসিন্দা সাদ্দাম হোসেন খানের সন্ধান পায় এসটিএফ।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button