জাতীয়

বাসভাড়া ১ টাকা কম দিতে যেতে হবে ২০ কিলোমিটার

ঢাকা, ০১ সেপ্টেম্বর – জ্বালানি তেল ডিজেলের দাম কমার বিপরীতে বাসের ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে পাঁচ পয়সা কমানো হলেও বাস্তবে এর কোনো অস্তিত্ব নেই। প্রায় কোনো বাসেই কমেনি ভাড়া। দু’দিন আগেও বাসে যে ভাড়া নেওয়া হতো এখনো একই ভাড়া নেওয়া হচ্ছে।

যাত্রীরা বলছেন, যেখানে কিলোমিটার হিসাব করে বাসের ভাড়া নেওয়া হয় না, সেখানে পাঁচ পয়সা ভাড়া কমানোর কোনো মানে নেই।

ভাড়া যা ছিল এখনো তাই নেওয়া হচ্ছে। দূরপাল্লায় ২০০ কিলোমিটার পথে ১০ টাকা ভাড়া কমলেও মহানগরীতে এর কোনো প্রভাব পড়বে না। ঢাকায় পাঁচ পয়সা বাস ভাড়া কমানো যাত্রীদের সঙ্গে তামাশা করা ছাড়া আর কিছুই না।
যদিও বাস কন্ডাক্টরদের সঙ্গে কথা হলে তারা জানান, পাঁচ পয়সা ভাড়া কমাতে ২০ কিলোমিটার পথে এক টাকা ভাড়া কমেছে। যে যাত্রী টানা ২০ কিলোমিটার পথ যাবে তার জন্যই এক টাকা ভাড়া কমবে। সেই টাকা ভাংতি পাওয়াও কঠিন। আর বেশির ভাগ যাত্রী টানা ২০ কিলোমিটার পথ যায় না। সে ক্ষেত্রে তাদের তো পয়সা হিসাব করে ভাড়া কম রাখা সম্ভব না।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলিস্তান, ফুলবাড়িয়া, রামপুরা, বংশাল, বাড্ডা, ফার্মগেট, মহাখালীসহ বিভিন্ন এলাকা সরেজমিনে ঘুরে বাসভাড়া না কমার দৃশ্য দেখা যায়।

এর আগে ২০১৬ সালে ডিজেলের দাম কমার বিপরীতে তিন পয়সা ভাড়া কমিয়েছিল বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। তখনো মাঠ পর্যায়ে ভাড়া কমেনি।

এদিকে বুধবার বাসের ভাড়া কমিয়ে রাতেই প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, আন্ত জেলা ও দূরপাল্লায় চলাচলকারী বাস ও মিনিবাসের ক্ষেত্রে প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া দুই টাকা ২০ পয়সার জায়গায় দুই টাকা ১৫ পয়সা করা হয়েছে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলকারী বাসের ক্ষেত্রে প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া দুই টাকা ৫০ পয়সার জায়গায় দুই টাকা ৪৫ পয়সা করা হয়।

এ ছাড়া ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলকারী মিনিবাস এবং ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) আওতাধীন জেলার (নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, নরসিংদী, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ ও ঢাকা জেলা) অভ্যন্তরে চলাচলকারী বাস ও মিনিবাস উভয় ক্ষেত্রে প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া দুই টাকা ৪০ পয়সার জায়গায় দুই টাকা ৩৫ পয়সা করা হয়। ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলকারী বাস ও মিনিবাসের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ভাড়া যথাক্রমে ১০ টাকা এবং আট টাকা নির্ধারিত হলো।

গত ৬ আগস্ট সর্বশেষ বাস ভাড়া বাড়ানো হয়। তখন দূরপাল্লার বাসে প্রতি কিলোমিটারে ৪০ পয়সা বাড়িয়ে দুই টাকা ২০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে বাসভাড়া বাড়ানো হয়েছিল ২২ শতাংশ। এ ছাড়া মহানগরীতে কিলোমিটারপ্রতি ৩৫ পয়সা বাড়িয়ে ভাড়া দুই টাকা ৫০ পয়সা করা হয়। তাতে ভাড়া বৃদ্ধি পেয়েছে ১৬.২৭ শতাংশ। মহানগর পর্যায়ে মিনিবাসের ক্ষেত্রে কিলোমিটারপ্রতি বাসভাড়া দুই টাকা ৪০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়। যা আগে ছিল দুই টাকা ১০ পয়সা।

সূত্র: কালের কণ্ঠ
এম ইউ/০১ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button