জাতীয়

বঙ্গবন্ধু নিজেও বিশ্বাস করেননি দেশের মানুষ তাকে হত্যা করতে পারে

ঢাকা, ৩১ আগস্ট – প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৫ আগস্টে আমরা স্বজন হারিয়েছি ঠিকই, কিন্তু দেশ হারিয়েছে তাদের ভবিষ্যৎ’। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কখনও চিন্তাই করতে পারেননি দেশের মানুষ তাকে হত্যা করতে পারে।

বুধবার (৩১ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সন্মলেন কেন্দ্রে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক স্মরণ সভায় এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু সংগ্রামের মধ্য দিয়ে দেশের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। তিনি মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন সংগঠন শক্তিশালী করার জন্য। আজকালের ছাত্রনেতারা এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিতে পারে। আজকে আমরা দেখি অনেকেই দল ছেড়ে দেয় মন্ত্রিত্ব করার জন্য।

ছাত্রলীগের উদ্দেশ্যে সরকারপ্রধান বলেন, রাজনীতি করতে হলে ইতিহাস জানতে হবে। ইতিহাসই তোমাদের পথ দেখাবে।

দেশ গঠনে ছাত্রলীগ সব সময় ভূমিকা রেখেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ছাত্রলীগ কৃষকের ধান কেটে দিয়েছে, প্রয়োজনে ধান লাগিয়ে দিবে। রাজনীতি করতে হলে মানুষের পাশে থাকতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশ ও স্বাধীনতার জন্য আমার বাবার যে সংগ্রাম, সেই সংগ্রামের সারথি ছিলেন আমার মা। সব সময় আমার মা বাবাকে সাহস জুগিয়েছেন। বাবাও মায়ের সঙ্গে অনেক কথা বলতেন। স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম মা-ই সবার আগে জানতেন।

ময়ের কথা স্মরণ করে তিনি আরও বলেন, মা তার শৈশব থেকেই বাবার পাশে ছিলেন। তখন থেকেই তিনি বাবাকে সহযোগিতা করে এসেছেন। বাবা বারবার কারাগারে যেতেন। কিন্তু কখনও বাবাকে সংসারের ব্যাপারে চিন্তা করতে দেননি। তিনি সব সময় বাবাকে বলতেন- তুমি রাজনীতিতে সময় দাও, আমি সংসার দেখছি। কিন্তু তিনি যে শুধু সংসারই দেখতেন তা নয়, সংগঠনেও সময় দিতেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নানা প্রতিকুলতায় কখনও মায়ের কোন অভিযোগ, অনুযোগ দেখিনি। যখন জীবন যেমন, তখন তিনি তা মেনে নিয়েছেন।

করোনা ও ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে চলমান বিশ্ব সঙ্কটের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবাইকে সাশ্রয়ি হতে হবে। প্রয়োজনে পায়ে হেঁটে চলতে হবে, এতে স্বাস্থ্য ভালো থাকে। বিশ্বব্যাপী পানির সঙ্কট চলছে, আমাদের অপচয় রোধ করতে হবে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/৩১ আগস্ট ২০২২

Back to top button