বলিউড

ধর্ম আলাদা হলে কি মানুষ আরও ভালোবাসত? মিডিয়ার প্রশ্নে শাহরুখ অবাক হয়ে বললেন

মুম্বাই, ২৭ আগস্ট – বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। ১৯৯২ সাল থেকেই বলিউডে তার রাজত্ব। অভিনয় দিয়ে সবাইকে যেন নিজের করে নিয়েছেন এই প্রেমিক পুরুষ। অনেকে রুমান্টিক হিরো বলেও ডাকেন তাকে। সবকিছু মিলিয়ে তার ভক্ত ও ভালবাসার মানুষ অগণিত। দেশ ও দেশের বাইরেও রয়েছে তার অসংখ্য ভক্ত। শাহরুখ খান এখন শুধু একটা নাম নয়, দেশের মানুষের একটা আবেগ। তবে তার ধর্ম নিয়ে কি কখনো দেশে মুশকিলে পড়েছেন তিনি?

২০০৯ সালের এক ইভেন্টে শাহরুখকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, এসআরকে’র পুরো নাম যদি শাহরুখ খানের বদলে শেখর রাধা কৃষ্ণ হত, তাহলে কি ব্যাপারটা অন্যরকম হত?

এই প্রশ্নের উত্তরে বাদশা বলেছিলেন, ‘শাহরুখ হোক বা শেখর রাধা কৃষ্ণ, তার গন্ধ ততটাই মনোরম হতো। আমার তো মনে হয় না কোনও পার্থক্য থাকত। অন্তত আমার কখনো এরকম মনে হয়নি নিজের কাজ করার সময়। ধর্ম নিয়ে আলাদা কোনো কিছু ভাবিনি ভারতের মতো অসাধারণ দেশে। আমার তো এটা শুনলেও খুব অবাক লাগে। আর তাছাড়া শিল্প এসব বিভেদ অতিক্রম করে যায়। কারণ মানুষ শুধু ভালোটা বা ভালো অভিনেতাকে বেছে নেন, সেখানে ধর্মের কথা তাদের মাথাতেও থাকে না। তাই আমাকে যেই নামেই ডাকা হোক, আমার মিষ্টত্ব একই থাকবে।’

এই সাক্ষাৎকারেই শাহরুখকে আরও প্রশ্ন করা হয় তিনি কী মনে করেন ধর্ম ও আধ্যাত্মিকতায় একটা বড় ভূমিকা রয়েছে সিনেমার? উত্তরে তিনি বলেছিলেন, ‘আমার মনে হয় আধ্যাত্মিকতা খুব ব্যক্তিগত। এটা ভিতর থেকে আসে। আমার জন্য যেমন আমার অভিনয়টাই আধ্যাত্মিকতা।’

আইএ/ ২৭ আগস্ট ২০২২

Back to top button