জাতীয়

ইভিএম প্রত্যাখ্যান করে ফখরুল বললেন, ‘ভোট হবে ব্যালটে’

ঢাকা, ২৪ আগস্ট – আগামী জাতীয় নির্বাচনে দেড় শ আসনে ইভিএমে ভোট করার নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘ভোট হবে সম্পূর্ণ ব্যালটে। ’

আজ বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যৌথ সভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিষয়ে তিনি এই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচন কমিশন কেবল সরকারের ইচ্ছা পালন করার জন্য ইভিএমের কথা বলেছে। এটা কখনোই জনগণ গ্রহণ করবে না, আমরাও গ্রহণ করছি না।

এটাকে পুরোপুরিভাবে আমরা এটাকে প্রত্যাখ্যান করছি। ’
মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচনকালীন একটি নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে জনগণের দাবি প্রতিফলিত হবে না, জনগণের যে রায় সেই রায় প্রতিফলিত হবে না। সুতরাং অবিলম্বে এই সরকারকে ব্যর্থতার জন্য পদত্যাগ করতে হবে এবং পদত্যাগ করে তাদের একটা নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে।

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচন কমিশনের ব্যাপারে আমাদের ইন্টারেস্ট নেই। তারা কী বলছে না বলছে, কী করছে এটা আমাদের কাছে আগ্রহ নেই। কারণ আমরা বিশ্বাস করি সরকার যদি পরিবর্তন না হয় নির্বাচনকালীন সময়ে সেখানে কোনো নির্বাচন কমিশনের পক্ষেই সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব না। এখন প্রমাণিত হলো এই নির্বাচন কমিশনও সরকারের অঙ্গসংগঠন। কারণ ওরা (আওয়ামী লীগ) ৩০০ আসনে ইভিএম চেয়েছে। আর ওরা (নির্বাচন কমিশন) এখন অফার করেছে দেড় শতে। একটা রফা-সলভ কম্প্রোমাইজ সরকারের সঙ্গে। ’

তিনি বলেন, “সমস্ত রাজৈনৈতিক দলগুলো এমনকি জাতীয় পার্টি পর্যন্ত বলে এসেছিল ‘আমরা ইভিএম চাই না’। কারণ ইভিএম দিয়ে জনগণের রায় সঠিকভাবে প্রতিফলিত হবে না। তার পরও বর্তমান নির্বাচন কমিশন করা হয়েছে যেটাকে আমরা বলি অবৈধ নির্বাচন কমিশন। কারণ এই কমিশন গঠন করাও সঠিক পদ্ধতিতে হয়নি। ”

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির আমানউল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, আবদুস সালাম আজাদ, রুহুল কবীর রিজভী, মজিবুর রহমান সারোয়ার, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, নেওয়াজ হালিমা আরলি, তাইফুল ইসলাম টিপু, মহানগর বিএনপির রফিকুল আলম মজনু, আমিনুল হক, যুবদলের সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মোনায়েম মুন্না, স্বেচ্ছাসেবক দলের মোস্তাফিজুর রহমান, আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, মহিলা দলের সুলতানা আহমেদ, হেলেন জেরিন খান, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাদেক আহমেদ খান, শফিকুল ইসলাম মিলন, তাঁতী দলের আবদুল কালাম আজাদ, মজিবুর রহমান মুজিব, মৎস্যজীবী দলের আবদুর রহিম, শ্রমিক দলের আনোয়ার হোসাইন, মোস্তাফিজুল করীম মজুমদার, উলামা দলের নুজরুল ইসলাম তালুকদার, সেলিম রেজা, জাসাসের লিয়াকত আলী, জাকির হোসেন রোকন, ছাত্রদলের সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: কালের কণ্ঠ
এম ইউ/২৪ আগস্ট ২০২২

Back to top button