সিলেট

বান্ধবীর সহায়তায় ৩ দিন আটকে রেখে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

সিলেট, ২৪ আগস্ট – বান্ধবীর আমন্ত্রণে সিলেট ঘুরতে গিয়ে সংঘবদ্ধ এক তরুণী (২৩) ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তরুণীর করা মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- সুনামগঞ্জ পৌর শহরের হাছননগরের জুনু মিয়ার ছেলে বর্তমানে সিলেটের জালালাবাদ থানার নাজিরেরগাঁও ভাড়া বাসায় বসবাসকারী জুবায়ের হোসেন (২৮), তার স্ত্রী জুলেখা ওরফে জুলি (১৯) ও জালালাবাদ থানার নাজিরেরগাঁওয়ের বাসিন্দা আব্দুল মছব্বিরের ছেলে জয়নাল মিয়া (৪০)।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, জুবায়ের হোসেনের স্ত্রী জুলির সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় ঢাকার উত্তরা থানার আজমপুর এলাকার ওই তরুণীর সঙ্গে। ফেসবুকে তাদের দুজনের মধ্যে বন্ধুত্ব হয়। দীর্ঘদিন জুলি ওই তরুণীকে সিলেট এসে ঘুরে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানান।

সেই আহ্বানে সাড়া দিয়ে ১৯ আগস্ট সিলেটে ঘুরতে আসেন ওই তরুণী। ওঠেন জুলির বাসায়। ওই দিন সন্ধ্যায় মেয়েটিকে জুলি তার স্বামী জুবায়ের হোসেনের কাছে তুলে দেন। এরপর দুদিন ওই ভাড়া বাসায় আটকে রেখে সাতজন তাকে ধর্ষণ করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবু খালেদ মামুন বলেন, মঙ্গলবার অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ভিকটিমকে চিকিৎসা ও ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ২৪ আগস্ট ২০২২

Back to top button