দক্ষিণ এশিয়া

ইমরান খানের ৬ মাসের জেল হতে পারে

ইসলামাবাদ, ২৩ আগস্ট – আদালত অবমাননার অভিযোগে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হলে ছয় মাসের জেল হতে পারে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর।

সিন্ধু হাইকোর্টের সাবেক প্রধান বিচারপতি শায়েক উসমানি বলেছেন, আদালত অবমাননার অভিযোগ প্রমাণিত হলে পিটিআই চেয়ারম্যানকে ছয় মাসের জেলে যেতে হতে পারে।

শুধু তাই নয়, বিচারে দোষী সাব্যস্ত হলে ইমরান খান নির্বাচনের জন্য অযোগ্য হবেন এবং আগামী পাঁচ বছরের জন্য ভোটে অংশ নিতে পারবেন না। সোমবার (২২ আগস্ট) জিও নিউজের ‘আজ শাহজেব খানজাদা কে সাথ’ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

ওই বিচারপতিকে অনুষ্ঠানে প্রশ্ন করা হয় শুধু কি একজন বিচারকের নাম নেওয়ায় এ শাস্তি হতে পারে? উত্তরে উসমানি বলেন, ‘যদি কোনো আদালত আপনার বিরুদ্ধে রায় দেন, আপনি রায়ের সমালোচনা করতে পারেন, বিচারকের নয়’।

তিনি আরও বলেন, তিনি পিটিআই চেয়ারম্যানকে বিপদের মধ্যে দেখছেন কারণ তিনি উত্তেজনা থেকে একটি বড় ভুল করেছেন। ইমরান খান ক্ষমা চাইলেও হয়তো নাও পেতে পারেন।

এদিকে, জেলা ও দায়রা জজ জেবা চৌধুরীকে হুমকির অভিযোগে ইমরান খানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার নোটিশ জারির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট। আদালতের রেজিস্ট্রার বিষয়টি উত্থাপন করেন। এতে সম্মতি দেন অন্য বিচারকরাও। পরে আদালত এ সিদ্ধান্ত নেন।

বিচারক ও পুলিশ কর্মকর্তাদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে পিটিআই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস দমন আইনে মামলার একদিন পর আদালত অবমাননার অভিযোগে আইনি প্রক্রিয়া শুরুর এ সিদ্ধান্ত এলো। সন্ত্রাস দমন আইনের ওই মামলায় সোমবার হাইকোর্ট ২৫ আগস্ট পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেছেন।

শনিবার (২০ আগস্ট) ইসলামাবাদের এফ-৯ পার্কে বক্তৃতা দেওয়ার সময় সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ঊর্ধ্বতন এক পুলিশ কর্মকর্তা, এক নারী বিচারক, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এবং আমলাতন্ত্রকে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/২৩ আগস্ট ২০২২

Back to top button