জাতীয়

আর কত প্রাণ গেলে আমাদের টনক নড়বে?

ঢাকা, ২১ আগস্ট – রাজধানীতে প্রকল্প বাস্তবায়নে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকায় সংশ্লিষ্টদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, গত সোমবার (১৫ আগস্ট) রাজধানীর উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের গার্ডার পড়ে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনার পরদিন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থার কিছুই দেখিনি। সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর কবে টনক নড়বে।

রোববার (২১ আগস্ট) ডিএনসিসির নগরভবনে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন মেয়র। সভায় ঢাকায় চলমান বিভিন্ন প্রকল্পের পরিচালক, সংস্থা প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তব্যের শুরুতে ১০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ক্লিপ দেখান আতিকুল ইসলাম। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, রাজধানীর শেওড়া এলাকায় এভিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের একটি ক্রেন দিয়ে উপরে মালামাল ওঠানো হচ্ছে। নিচ দিয়ে চলাচল করছে যানবাহন। এ সময় কোনো ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

মেয়র জানান, গতকাল পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ভিডিওটি তুলে মেয়রকে পাঠান। বারবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথা বলা হলেও কেউ বিষয়টি কানে তুলছেন না। ক্রেন দিয়ে মালামাল তোলা হচ্ছে, নিচ দিয়ে চলাচল করছে যানবাহন। এখানে কোথায় নিরাপত্তা? শুধু কথায় না, কাগজেকলমে করে দেখাতে হবে। যে ঠিকাদার কাজ করছেন তিনি সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করবেন।

শনিবারও গাজীপুরে বিআরটি প্রকল্পের কাজ চলার সময় একটি প্রাইভেটকারের ওপর রড এসে পড়ে জানিয়ে মেয়র বলেন, এসব ঘটনায় সরকার বিব্রত। একটি করে দুর্ঘটনা ঘটে, আমরা বিব্রত, সরকার বিব্রত। গতকালও গাজীপুরে রড পড়েছে গাড়ির ওপর। আমাদের এখনও টনক নড়ে নাই, আর কত প্রাণ গেলে আমাদের টনক নড়বে? সরকারকে বিব্রত করা যাবে না, জনগণকে ভোগান্তিতে ফেলা যাবে না।

মেয়র আতিকুল ইসলাম জানান, নিরাপত্তা নিশ্চিত না করে কোনো প্রকল্পের কাজ করা যাবে না। এ বিষয়টি ডিএনসিসি তদারক করবে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কাজ করলে কোনো সমস্যা হবে না। কিন্তু এর ব্যত্যয় করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মেয়র বলেন, আমি যে কোনো সময় বিভিন্ন সাইটে পরিদর্শনে যাবো, সঙ্গে আমাদের ম্যাজিস্ট্রেটরা যাবেন। কোনো অনিয়ম পাওয়া গেলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সভায় ঢাকা বিআরটি কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুর রহমান, সওজের প্রধান প্রকৌশলী একেএম মনির হোসেন পাঠান, রাজউজের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান মিয়া, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হায়দার, ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন সিদ্দিক উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/২১ আগস্ট ২০২২

Back to top button