নারায়নগঞ্জ

ক্ষমতায় আইসা কাউরে নির্যাতন করি নাই

নারায়ণগঞ্জ, ২০ আগস্ট – নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, ‘ক্ষমতার বাইরে থাকার সময় লাশ নিয়ে যাওয়ার সময়ও আমাদের ওপর গুলি করা হয়েছে। লাশের ভেতর থেকে সত্তরটা গুলি বের করেছি। কিন্তু আমরা ক্ষমতায় আইসা তো কাউরে নির্যাতন করি নাই।’

শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের বন্দরে শোক দিবস উপলক্ষে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, ‘করোনা ও বন্যা মোকাবিলা করলেও এখন যে সমস্যা সেটা প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মোকাবিলা করা সম্ভব না। কারণ এইটা আন্তর্জাতিক সমস্যা। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পৃথিবীকে কোথায় নিয়ে যাবে তা আমরা জানি না। এই যুদ্ধ আরেকটু দীর্ঘ হলে পৃথিবীর বহু দেশে দুর্ভিক্ষ হবে। নেত্রী কোনো জায়গা ফেলে না রেখে চাষ করার কথা বলছেন। আল্লাহর রহমতে পৃথিবীর অনেক দেশের চেয়ে এখন পর্যন্ত আমরা ভালো আছি।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘যারা বিদেশ থেকে সরকার বিরোধীদের টাকার জোগান দিচ্ছে, ওরা শেখ হাসিনা সরকারের পরিবর্তন চায় না। ওরা চায় বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে। শেখ হাসিনাহীন এই বাংলাদেশে কী হবে তা আমরা কল্পনা করতে পারি না। শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সম্পদ না। বঙ্গবন্ধুও আওয়ামী লীগের সম্পদ ছিলেন না। তিনি ছিলেন আমাদের স্বপ্ন। আমাদের স্বপ্নকে মেরে ফেলা হয়েছিল।’

সরকারদলীয় এই এমপি বলেন, ‘শকুনরা সুযোগ নিতে চায়। ওরা রাস্তায় স্লোগান দেয়। ওরা বলে, নির্বাচন বাদ দিন, রাজপথ দখলে নিন। সুষ্ঠুভাবে আন্দোলন করলে, ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসলে বাধা দেবো না। নারায়ণগঞ্জে অনেক নেতা আছেন। ওনারা নেতা, আর আমি কর্মী। অনেকেই জানতে চান আমি কেন নামছি। নেতা ও নেত্রীদের বলতে চাই, রাজনীতি করতে এসে চাওয়া-পাওয়ার হিসাব নাই। বঙ্গবন্ধু আমার আদর্শ হলে শেখ হাসিনা আমার আদর্শের মা। যখন দেখবো জাতির পিতা ও তার কন্যাকে নিয়ে খারাপ স্লোগান দেওয়া হচ্ছে, তখন চুপ করে থাকবো না।’

তিনি বলেন, ‘হয়তো শামীম ওসমানের জানাজা পড়তে হবে, রাস্তায় পড়ে থাকবে আমার লাশ। কিন্তু শেখ হাসিনাই প্রধানমন্ত্রী হবেন। সব বাধা অতিক্রম করা হবে।’

বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ রশীদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জিএম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি জুয়েল হোসেন, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু প্রমুখ।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/২০ আগস্ট ২০২২

Back to top button