জাতীয়

দেশের ৫৩ শতাংশ মানুষ খাবার খাওয়া কমিয়ে দিয়েছে

ঢাকা, ১৯ আগস্ট – বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশিদ ফিরোজ বলেছেন, চা শ্রমিকরা মানবেতর জীবনযাপন করছে। শ্রমিকদের প্রতি মালিকদেরতো ভ্রূক্ষেপ নেই, পাশাপাশি সরকারেরও কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই।

সরকার বাগান মালিকদের পক্ষ নিয়েছে এবং সরকার ও চা বাগান মালিকরা মিলে শ্রমিকদের চলমান আন্দোলন বন্ধ করে দিতে চাইছে।
শুক্রবার (১৯ আগস্ট) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চা শ্রমিকদের আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে তাদের দাবি মেনে নিতে সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

বজলুর রশিদ বলেন, সরকার ও বাগান মালিকরা জানে শ্রমিকরা কয়েকদিন আন্দোলন করবে তারপর পেটের দায়ে আবার কাজে যোগ দেবে। কিন্তু তা হতে দেওয়া যাবে না। শ্রমিকদের আন্দোলন যতদিন চলবে প্রয়োজনে শ্রমিকদের খাবারের জন্য আমরা লঙ্গরখানার ব্যবস্থা করবো। শ্রমিকরা এখন ৩০০ টাকা চাচ্ছে তা মেনে নিন। কয়েকদিন পরে ৫০০ টাকার জন্য আন্দোলন করা হবে।

তিনি বলেন, চা বাগানে শ্রমিকদের স্বাভাবিক জীবনের কোনো ব্যবস্থা নেই। মালিকরা তাদের সঙ্গে যে আচরণ করছে তা মানবতার পরিপন্থী। ভারতে চা শ্রমিকরা বাংলাদেশি টাকায় ৪৫০-৫০০ টাকা হাজিরা পায়। আর আমাদের দেশে ১২০ টাকা দেওয়া হয়। এই ১২০ টাকাও সব শ্রমিকরা পায় না।

তিনি আরো বলেন, নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়েছে সরকার ফলে দেশের ৫৩ শতাংশ মানুষ খাবার খাওয়া কমিয়ে দিয়েছে। তারা এখন ২ বেলার বদলে ১ বেলা খেয়ে থাকছে। তাই দেশের এই সংকট থেকে উত্তরণে ২৫ আগস্টের হরতাল পালন করুন।

সংহতি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জাফর হোসেন, আবুল কালাম ও হারুনুর রশিদ। সমাবেশে বাসদের বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/১৯ আগস্ট ২০২২

Back to top button