ক্রিকেট

বাদ পড়ছেন ডমিঙ্গো, কে হচ্ছেন নতুন কোচ?

ঢাকা, ১৯ আগস্ট – বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর অবস্থান নড়বড়ে অনেক দিন ধরে। নানা আলোচনা সমালোচনার পরেও চুক্তি নবায়ন করেছে বিসিবি। কিন্তু এবার শুরু হয়েছে নতুন গুঞ্জন। টি-টুয়েন্টি ফরমেটে নতুন কোচ নিয়েও ভাবছে বিসিবি।

একই সঙ্গে ২৭ আগস্ট শুরু হতে যাওয়া এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলের কোচ হিসেবে কাকে পাঠানো হবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার হঠাৎ মিরপুর মাঠে আসেন বিসিপি প্রধান নাজমুল হোসেন পাপন। সেখানে সাকিব-মুশফিকদের প্রাকটিস দেখার পর গণমাধ্যমে কথা বলেন বিসিবি বস। সেখানেই মিলেছে নতুন আভাস। কোচ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পাপন বলেন, ‘এ ব্যাপারে আগামী দু–এক দিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে। ’

তবে সেই ঘোষণার জন্য অপেক্ষা করতে হবে কাল-পরশু পর্যন্ত। অপেক্ষাটা আসলে ডমিঙ্গোর ঢাকায় আসার জন্যই। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আজ তাঁর ঢাকায় এসে পৌঁছানোর কথা। এর পর আগামীকাল সভায় বসবেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে। তাঁকে নিজেদের চিন্তাভাবনার কথা জানিয়েই এশিয়া কাপের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিতে চায় বিসিবি।

সেখানে এশিয়া কাপে নতুন হেড কোচ হতে পারেন টাইগারদের ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্স। বিসিবির এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে সংস্করণভেদে জাতীয় দলের প্রধান কোচ হতে পারেন দুজন। টি–টোয়েন্টিতে জেমি সিডন্স ও টেস্ট এবং ওয়ানডেতে ডমিঙ্গো। সেই আভাস মিলেছে পাপনের কথায়। তিনি বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে আমরা শক্তিশালী নই। এটা নিয়ে কী করা যায়, ভাবতে গিয়ে আমরা একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এশিয়া কাপ থেকেই দলের মানসিকতা, চিন্তাভাবনা সবকিছু বদলে ফেলতে চাচ্ছি। আমরা দেখতে চাই নতুন করে শুরু করা যায় কি না। ’

পাওয়ার হিটিং নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী জেমি সিসন্স নিজেই। এ নিয়ে বিসিবি প্রধানের সঙ্গে তার কথাও হয়েছে। বিসিবি সভাপতির বলেন, ‘কদিন আগে জেমি সিডন্স আমার বাসায় এসেছিল। কিছু বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করছিলাম। যদি আমরা জিততে চাই বা ভালো করতে চাই টি-টোয়েন্টির ভাবনাটা পরিবর্তন করতে হবে। এটার কোনো বিকল্প নেই। ১৩০ করে তো ম্যাচ জিততে পারবেন না। আমাদের ১৮০-২০০ রান করতে হবে। এখন আমাদের পরিকল্পনায় সেটা করার কোনো লক্ষণই দেখছি না। নতুন কী করা যায়, এটা নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। তখন জেমি এসে বলল যে সেও নাকি এটাতে খুবই আগ্রহী। ’

অন্যদিকে বিসিবির একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, এশিয়া কাপে কোচ হিসেবে নতুন মুখ আসতে পারে। ডোমিঙ্গোর জায়গায় নিয়োগ হতে পারেন ভারতীয় কোচ শ্রীধরন শ্রীরাম।
আইপিএলে কাজের অভিজ্ঞতা থাকায় শ্রীরামকেই প্রধান কোচ করা হতে পারে। এশিয়া কাপ ভালো করলে বিশ্বকাপেও থাকবেন শ্রীরাম, এমনটাই গুঞ্জন ক্রিকেট পাড়ায়। দীর্ঘ মেয়াদেও টি২০ কোচ করা হতে পারে তাঁকে।

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী শ্রীরাম ভারত জাতীয় দলে খেলেছেন। ২০০০ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত ৮টি ওয়ানডে খেলেছেন তিনি। অস্ট্রেলিয়া দলে স্পিন কোচ হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে তাঁর।

তবে সব কিছুই নির্ভর করছে আগামীকালের সভার ওপর। এর পরই আসবে ঘোষণা। তখন জানা যাবে এশিয়া কাপে কে হবেন টাইগার কোচ।

সূত্র: কালের কন্ঠ
আইএ/ ১৯ আগস্ট ২০২২

Back to top button