এশিয়া

শুধুমাত্র গাঁজা সেবনের জন্য থাইল্যান্ডে যাওয়া মানা

ব্যাংকক, ১৮ আগস্ট – শুধুমাত্র গাঁজা সেবনের জন্য যে সব পর্যটক থাইল্যান্ডে আসেন তাদের স্বাগত জানানো হবে না বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী অনুতিন চরনবিরকুল। বুধবার (১৭ আগস্ট) সাংবাদিকদের তিনি এমনটি জানান।

থাইল্যান্ডের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা এমন পর্যটকদের স্বাগত জানাবো না। কয়েক মাস আগেই এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে গাঁজা চাষকে বৈধ বলে ঘোষণা দেয় থাইল্যান্ড। এর ফলে ব্যাপকভাবে বিনোদনের উদ্দেশে এর সেবন শুরু হয়। এর আগে ২০১৮ সালে চিকিৎসার জন্য গাঁজা ব্যবহারকে থাইল্যান্ডে বৈধতা দেওয়া হয়। সরকারের অনুরোধ সত্ত্বেও, বিশেষ ধূমপান কক্ষসহ গাঁজা সেবন পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

থাইল্যান্ডে জনসম্মুখে ধূমপান করলে তিন মাসের জেল ও ২৫ হাজার বাথ বা ৭০৫ ডলার জরিমানার বিধান রয়েছে।

করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারির পর ফের ঘুরে দাঁড়াচ্ছে থাইল্যান্ডের পর্যটন শিল্প। এরমধ্যে এমন মন্তব্য করলেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তবে অনুতিন জানিয়েছেন, মাদকটি সম্পর্কে আরও ভালোভাবে বুঝতে পারলে ধীরে ধীরে এটি বিনোদনের জন্য ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হবে।

ধারণা করা হচ্ছে, চলতি ৮০ লাখ থেকে ১ কোটি পর্যটক দেশটি ভ্রমণ করবে।

গত বছর করোনা মহামারির কারণে দেশটিতে ৪ লাখ ২৮ হাজার পর্যটক গিয়েছিলেন। ২০১৯ সালে এই সংখ্যা ছিল প্রায় ৪ কোটি।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/১৮ আগস্ট ২০২২

Back to top button