ইউরোপএশিয়া

রাশিয়ায় সেনা পাঠাচ্ছে চীন

বেইজিং, ১৭ আগস্ট – রাশিয়ায় একটি যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশগ্রহণ করবে চীন। এজন্য দেশটিতে সেনা পাঠানো হবে বলে বুধবার জানিয়েছে চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। যৌথ মহড়ায় ভারত, বেলারুশ, মঙ্গোলিয়া, তাজিকিস্তানসহ আরও কয়েকটি দেশ অংশগ্রহণ করবে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, যৌথ মহড়ায় চীনের অংশগ্রহণ বর্তমান আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক পরিস্থিতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নয়।

গত মাসে মস্কো ৩০ আগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ‘ভস্তোক’ (পূর্ব) নামের যৌথ মহড়ার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছিল। যদিও দেশটি ইউক্রেনে একটি যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছে। ওই সময় বলা হয়েছিল, মহড়ায় কয়েকটি বিদেশি বাহিনী অংশগ্রহণ করবে। তবে দেশগুলোর নাম উল্লেখ করা হয়নি।

রাশিয়ার এধরনের যৌথ সামরিক মহড়া সর্বশেষ ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই সময় চীন প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ করেছিল।

বুধবারের বিবৃতিতে চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় উল্লেখ করেছে, মহড়ায় অংশগ্রহণ রাশিয়ার সঙ্গে চলমান বার্ষিক দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার অংশ।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, লক্ষ্য হলো অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর প্রায়োগিক ও বন্ধুত্বপূর্ণ সহযোগিতা গভীর করা, কৌশলগত সহযোগিতার মাত্রা বৃদ্ধ এবং বিভিন্ন নিরাপত্তা হুমকি মোকাবিলার সামর্থ্য শক্তিশালী করা।

চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের শাসনামলে বেইজিং ও মস্কো অনেক বেশি ঘনিষ্ঠ হয়েছে।

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণ শুরুর কিছু দিন আগে বেইজিং সফর করেন পুতিন। ওই সময় তারা ঘোষণা দেন, ‘দুই দেশের সম্পর্কে কোনও সীমা নেই’। অবশ্য মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, রাশিয়ার ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা এড়িয়ে যাচ্ছে না চীন কিংবা কোনও সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহ করছে না।

রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় সামরিক জেলার মধ্যে রয়েছে সার্বিয়া। এর সদর দফতর চীনা সীমান্তের কাছে খাবারোভস্কতে অবস্থিত।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
এম ইউ/১৭ আগস্ট ২০২২

Back to top button