দক্ষিণ এশিয়া

‘রাশিয়া থেকে ভারতের তেল কেনার বিষয়টি সহজভাবে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র’

ব্যাংকক, ১৭ আগস্ট – ইউক্রেন যুদ্ধ সত্ত্বেও রাশিয়ার কাছ থেকে ভারতের তেল কেনার বিষয়ে সমালোচনার কঠোর জবাব দিয়েছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। তিনি বলেছেন, জ্বালানির বাড়তি দাম কমাতে সব দেশই চেষ্টা করে সম্ভাব্য সেরা চুক্তিটি করার। ভারতও সেটাই করেছে। আর নিম্নআয়ের একটি দেশের মন্ত্রী হিসেবে জনগণের কাছে সম্ভাব্য সর্বনিম্ন দামে জ্বালানি পৌঁছানো তার নৈতিক দায়িত্ব।

গত মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) ব্যাংককে ভারতীয় কমিউনিটির সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় জয়শঙ্কর বলেন, তেল ও গ্যাসের দাম অযৌক্তিকভাবে চড়া। ইউরোপ রাশিয়া থেকে কম কেনায় ঐতিহ্যবাহী অনেক সরবরাহকারী তাদের জ্বালানি ওই মহাদেশটিতে সরিয়ে নিয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইউরোপ মধ্যপ্রাচ্যসহ অন্যান্য উৎসগুলো থেকে বেশি করে জ্বালানি কিনছে, যারা হয়তো ভারতে সরবরাহ করতো।

ভারতীয় মন্ত্রী বলেন, আজকের এই পরিস্থিতিতে প্রতিটি দেশই নাগরিকদের জন্য সম্ভাব্য সর্বোত্তম চুক্তি করতে এবং জ্বালানির চড়া দামের প্রভাব কমাতে চেষ্টা করবে। আমরাও সেটাই করছি। তবে ভারত এটি রক্ষণাত্মকভাবে করছে না। আমরা আমাদের স্বার্থ সম্পর্কে সবসময়ই খোলামেলা ও সৎ ছিলাম।

তিনি বলেন, আমার দেশের মাথাপিছু আয় দুই হাজার মার্কিন ডলার। এ দেশের জনগণের পক্ষে চড়া দামে জ্বালানি কেনা সম্ভব নয়। তাদের জন্য সেরা চুক্তি করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে এবং এটি আমার নৈতিক দায়িত্ব।

ভারত রাশিয়ার তেল কেনায় যুক্তরাষ্ট্রের আপত্তির বিষয়ে জয়শঙ্কর বলেন, তারা আমাদের অবস্থা সম্পর্কে জানে এবং বিষয়টি মেনে নিয়েছে।

তিনি বলেন, খোলাখুলি ও সততার সঙ্গে কোনো বিষয় তুলে ধরলে মানুষ তা গ্রহণ করবে। তারা হয়তো সবসময় প্রশংসা করবে না। কিন্তু একবার সেটি ঘটার পর আপনি যদি খুব বেশি চালাক সাজার চেষ্টা না করে সরাসরি নিজের স্বার্থের কথা জানান, সেক্ষেত্রে বিশ্ব সেটিকে বাস্তবতা হিসেবে মেনে নেবে বলে মনে করি।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/১৭ আগস্ট ২০২২

Back to top button