মধ্যপ্রাচ্য

জেদ্দায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১, আহত ৪

রিয়াদ, ১৩ আগস্ট – সৌদি আরবে ২০১৫ সালের একটি মারাত্মক বোমা হামলার সাথে জড়িত এক সৌদি ব্যক্তিকে নিরাপত্তা বাহিনী গ্রেপ্তার করার চেষ্টা করলে সে একটি বিস্ফোরক ডিভাইসের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেকে হত্যা করে। এ ঘটনা নিরাপত্তা বাহিনীর তিন সদস্যসহ একজন পাকিস্তানি নাগরিক আহত হয়েছেন। আহতদের নাম প্রকাশ করা হয়নি, তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

শুক্রবার সৌদির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের বরাতে এই তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স।

সৌদি বার্তা সংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, নিহত ওই ব্যক্তিকে আবদুল্লাহ বিন জায়েদ আল-শেহরি বলে শনাক্ত করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার রাতে জেদ্দার আল সামের এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনী তাকে গ্রেপ্তার করায় বিস্ফোরক বেল্টের বিস্ফোরণ ঘটায় আল-শেহরি।

সৌদি রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে, আল-শেহরিকে দেশটির একটি অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসী সেলের সদস্য বলে সন্দেহ করা হয়েছিলো। যেটি ২০১৫ সালে সৌদির আভায় একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলার সমন্বয় করেছিলো। এ হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর ১১ সদস্য এবং চার বাংলাদেশি নাগরিক নিহত এবং ৩৩ জন আহত হয়েছিলো ।

এছাড়াও ২০১৬ সালের শুরুতে বোমা হামলার সাথে জড়িত ছয় সৌদি নাগরিকের একজন হিসেবে আল-শেহরিকে চিহ্নিত করেছিলো সৌদি আরব সরকার।

২০০০-এর দশকে নিরাপত্তা বাহিনী এবং পশ্চিমা লক্ষ্যবস্তুসহ বেশ কয়েকটি বড় আকারের ইসলামি জঙ্গি হামলার স্বীকার হয় ইসলামের পবিত্রতম স্থান সৌদি আরব। ইসলামিক স্টেট, আল কায়েদা এবং অন্যান্য গোষ্ঠী এই ধরনের হামলা চালিয়েছে। যদিও বর্তমানে আক্রমণগুলো কমে গেছে।

সর্বশেষ ২০২০ সালে জেদ্দায় প্রথম বিশ্বযুদ্ধের একটি স্মরণ অনুষ্ঠানে বিস্ফোরক ব্যবহার করা হামলায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছিলো।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ১৩ আগস্ট ২০২২

Back to top button