রাজশাহী

রাজশাহীর ৯৫২ পুকুর সংরক্ষণে হাইকোর্টের নির্দেশ

রাজশাহী, ৮ আগস্ট – রাজশাহী শহরের হাজার খানেক পুকুর অক্ষত এবং প্রকৃত অবস্থায় রেখে সেগুলো সংরক্ষণ করতে মেয়র ও জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে নতুন করে কেউ যাতে পুকুর দখল বা ভরাট করতে না পারে, তাও নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে এ নির্দেশনা এসেছে।

২০১৪ সালে রাজশাহীর পুকুর ভরাট ও দখলের সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে পরিবেশবাদী ও মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে জনস্বার্থে রিট করা হয়।

তখন হাইকোর্ট রুল জারির পাশাপাশি রাজশাহী শহরের পুকুরের তালিকা দিতে নির্দেশ দেন। নির্দেশ অনুযায়ী রাজশাহীর জেলা জেলা প্রশাসন ৯৫২ পুকুরের তালিকা আদালতে দাখিল করেন। রুলের শুনানি শেষে সোমবার রায় দেন হাইকোর্ট।
আদালতে রুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ সাইফুজ্জামান। পরে মনজিল মোরসেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, প্রভাবশালীরা প্রশাসনের নাকের ডগায় পুকুর দখল ও ভরাট করে আসলেও এর বিরুদ্ধে কার্যলকর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। সংবিধান, পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে সুনির্দিষ্টভাবে জলাধার সংরক্ষণের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা থাকলেও রাজশাহী শহরের শত শত পুকুর দখল-ভরাটের বিরুদ্দে আইনগত কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি। যে কারণে রাজশাহী শহরের পুকুর দখল, ভরাটের বৈধতা প্রশ্নে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন।

মামলাটি চলমান থাকবে জানিয়ে এ আইনজীবী বলেন, ‘রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী ‘সুখান দিঘী’ দখলমুক্ত করে প্রকৃত অবস্থায় ফিরিয়ে এনে তা সংরক্ষণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র: কালের কন্ঠ
আইএ/ ৮ আগস্ট ২০২২

Back to top button