জাতীয়

‘বঙ্গবন্ধু পরিবারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার রুখতে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে’

ঢাকা, ৬ আগস্ট – মুক্তিযুদ্ধবিরোধী ষড়যন্ত্র-অপপ্রচার ও বঙ্গবন্ধু পরিবারের বিরুদ্ধে দেশে-বিদেশে যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তা রুখে দিতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) বিকেলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মন্ত্রণালয় আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বাংলাদেশে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব না থাকলে আমরা এরকম সমৃদ্ধ অবস্থায় থাকতাম না। তাই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের স্বার্থে, শেখ হাসিনার অভীষ্ট ও লক্ষ্য পরিপূর্ণভাবে সফল করার জন্য আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, শেখ কামাল তারুণ্যের অহংকারই শুধু নন, তিনি এক অতি সম্ভাবনাময় প্রতিভা ছিলেন। সে প্রতিভা সুপরিকল্পিতভাবে অকালে বিনাশ করে দেওয়া হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধু পরিবারের একজন দক্ষ সংগঠক যাতে টিকে থাকতে না পারেন সেজন্যই এমন কাজ করা হয়ছে।

‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পেছনে শুধু ব্যক্তি মুজিবকে হত্যার লক্ষ্য ছিল তা নয়, লক্ষ্য ছিল বঙ্গবন্ধুর পরিবার ও মুক্তিযুদ্ধের সবকিছু নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া। সেদিন বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে বেঁচে থাকায় দেশকে আবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মূল ধারায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ১৯৭৫ সালে একটি মহল চরম অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছিল। তারা বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধুর পরিবার ও আওয়ামী লীগকে ঘিরে জঘন্যতম মিথ্যা অপপ্রচার চালাত। সে সময় শেখ কামালকে যারা বিতর্কিত করতে চেয়েছিলেন তারা সফল হযননি।

‘শেখ কামাল বিনম্র প্রকৃতির মানুষ ছিলেন। তিনি আধুনিক সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠা করতে চাইতেন। তিনি ক্রীড়াঙ্গনকে সক্রিয় করে তুলেছিলেন। তিনি ছাত্র রাজনীতিকে পরিশীলিত ও পরিমার্জিত করে দেশের পুরো যুবসমাজকে এগিয়ে নিতে সংগঠকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন।’

মন্ত্রী আরও যোগ করেন, বঙ্গবন্ধু পরিবারকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টাকারীরা আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে দেশে ও দেশের বাইরে ‘৭৫ এর মতো সমালোচনা-অপপ্রচার শুরু হয়েছে। শেখ কামালের জন্মদিনে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে এসব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হবে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. তৌফিকুল আরিফ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ তথ্য দপ্তরের উপপরিচালক শেফাউল করিম, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. মনজুর হাসান ভুঁইয়া প্রমুখ।

এদিন সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকারের নেতৃত্বে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ৬ আগস্ট ২০২২

Back to top button