এশিয়া

চীনকে ‘অসৎ প্রতিবেশী’ বলছে তাইওয়ান

তাইপে, ০৫ আগস্ট – সামরিক মহড়া চালানোর সময় ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে চীনকে ‘অসৎ প্রতিবেশী’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে তাইওয়ান।

শুক্রবার চীনের বিষয়ে তাইওয়ানের প্রধানমন্ত্রী সু সং-চাঙ এ মন্তব্য করেন। খবর চ্যানেল নিউজ এশিয়ার।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সফরকে কেন্দ্র করে দ্বীপটির চারপাশে নজিরবিহনী লাইভ-ফায়ার মহড়া চালাচ্ছে বেইজিং। এতে বেশ কিছু ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে। যার মধ্যে চারটি তাইওয়ানের রাজধানী তাইপের ওপর দিয়ে উড়ে গেছে।

চীন দাবি করে তাইওয়ান তার ভূখণ্ডেরই অংশ। কিন্তু তাইওয়ান তা মানতে নারাজ।

জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানান, প্রথমবার চারটির মতো ক্ষেপণাস্ত্র তাইপের ওপর দিয়ে উড়ে গেছে। পাঁচটি পড়েছে জাপানের এক্সক্লুসিভ ইকনোমিক জোনে (ইইজেড), এটিও প্রথমবার।

এ ঘটনায় ইতোমধ্যে জাপান কূটনৈতিক প্রতিবাদ করেছে।

পরে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, ক্ষেপণাস্ত্রগুলো বায়ুমণ্ডল হয়ে উড়ে গেছে এবং কোনো হুমকি তৈরি করেনি।

তবে গোয়েন্দা উদ্বেগের কথা বলে ক্ষেপণাস্ত্র কোন এলাকা হয়ে উড়ে গেছে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি।

চলমান উত্তেজনার মধ্যে তাইওয়ানের প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার তাইপেতে বলেন, চীন সামরিক মহড়া দিয়ে নির্বিচারে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত জলপথ ধ্বংস করছে।

চীনের ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার বিষয়ে জানতে চাইলে দেশটি সম্পর্কে তিনি বলেন, এটি একটি ‘অসৎ প্রতিবেশী’।

সু আরও বলেন, চীনের কর্মকাণ্ডের বিষয়ে প্রতিবেশী দেশ ও বিশ্বে নিন্দা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া এ সামরিক মহড়া চলবে রোববার পর্যন্ত।

বেইজিং বলছে, তাইওয়ানের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক একটি অভ্যন্তরীণ বিষয়।

চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, মার্কিন-তাইওয়ানের যোগসাজশ এবং উসকানি তাইওয়ানকে বিপর্যয়ের অতল গহ্বরে ঠেলে দেবে, তাইওয়ানের নাগরিকদের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনবে।

এদিকে চীনের সামরিক মহড়ার প্রতিক্রিয়ায় তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন বলেন, তাইওয়ান সংঘাত উসকে দেবে না কিন্তু সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষা দৃঢ়ভাবে করবে।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/০৫ আগস্ট ২০২২

Back to top button