দক্ষিণ এশিয়া

জামিনে মুক্তি পেয়ে একই তরুণীকে ফের ধর্ষণ!

ভোপাল, ০৪ আগস্ট – ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন ২০২০ সালে। জামিনে মুক্তি পান গত বছর।

জেল থেকে বের হয়ে একই নারীকে ফের ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠেছে ওই যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশে।
এ খবর জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা ও এই সময়।

জানা গেছে, মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরের বাসিন্দা বিবেক প্যাটেলকে ধর্ষণের অভিযোগে জেলে পাঠানো হয় ২০২০ সালে। গত বছর জেল থেকে জামিনে ছাড়া পান তিনি। বের হয়ে ওই নারীকে মামলা তুলে নিতে বলেন। না নেওয়ায় তাকে ফের ধর্ষণ করা হয়েছে।

পুলিশকে ভুক্তভোগী ওই নারী জানিয়েছেন, গতমাসেই তাকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে ধর্ষণ করে বিবেক। সঙ্গে ছিল বিবেকের এক বন্ধুও।

ভুক্তভোগী বলেন, আমার গলায় ছুরি রেখে হুমকি দিয়ে ধর্ষণ করা হয়। এমনকি সেই ধর্ষণের ভিডিও রেকর্ডও করে রাখে তারা। এ সময় আগের ধর্ষণের অভিযোগ প্রত্যাহার না করলে ওই ভিডিওটি ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেওয়া হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২ বছর আগে যখন ধর্ষণের অভিযোগে জেলে পাঠানো হয় বিবেককে তখন এ ভুক্তভোগীর বয়স ছিল ১৭ বছর। তখন নাবালিকা ধর্ষণের অভিযোগে জেল হয় বিবেকের। এখন ভুক্তভোগী ১৯ বছরের তরুণী। তার অভিযোগের ভিত্তিতে বিবেক এবং তার বন্ধুর বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে।

২০১৯ সালের হিসাব অনুসারে ভারতে প্রতি ১৬ মিনিটে একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ সংখ্যা ২০১৮ সালে ১৫ মিনিট ছিল। জাতীয় গড় ধর্ষণের হার (প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ্যার) ২০১৯ সালে ছিল ৪.৯, যা ২০১৮ ও ২০১৭ সালে জাতীয় গড় ৫.২-এর চেয়ে কিছুটা কম।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/০৪ আগস্ট ২০২২

Back to top button