এশিয়া

‘স্বাধীনতার নামে বিশ্বাসঘাতকতা করছে তাইওয়ান’

বেইজিং, ০৪ আগস্ট – মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফরের বিষয়ে বেইজিংয়ের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। বর্তমানে ওয়াং ই পূর্ব এশিয়া সহযোগিতা সংক্রান্ত বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন এবং কম্বোডিয়ায় সফর করছেন। বুধবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, পেলোসির এই সফর একটি সম্পূর্ণ প্রহসন।

ওয়াং ই বলেন, যুক্তরাষ্ট্র তথাকথিত ‘গণতন্ত্রের’ আড়ালে চীনের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘনে জঘন্য কাজ করছে। তাইওয়ানের স্বাধীনতার নামে বিচ্ছিন্নতাবাদী বাহিনী যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যক্ষ সহায়তায় জাতির সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করছে। তিনি বলেন, এক চীন নীতিকে কেউ বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না এবং তাইওয়ান মাতৃভূমিতে ফিরে আসবে।

যারা আগুন নিয়ে খেলে এবং চীনের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করবে তাদের অবশ্যই শাস্তি দেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। এদিকে তাইওয়ানের চারপাশে নজিরবিহীন সামরিক মহড়া শুরু করেছে চীন।

নৌ ও আকাশ পথে দেশটি মহড়া চালাচ্ছে। মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর শেষে চীন এ পদক্ষেপ নিলো। কারণ চীনের চরম আপত্তি থাকা স্বত্ত্বেও মার্কিন এই শীর্ষ রাজনীতিবিদ মঙ্গলবার (২ আগস্ট) তাইওয়ান সফরে যান।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়েছে, তাইওয়ানের চারপাশে ছয়টি জায়গায় সামরিক মহড়া শুরু হয়েছে। মূলত পেলোসির তাইওয়ান সফরের শুরু থেকেই সামরিক প্রস্তুতি নিতে শুরু করে চীন। এরপর তাইওয়ানকে শাস্তি দিতে বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করেছে দেশটি। এদিকে তাইওয়ান জানিয়েছে, চীনের চলমান সামরিক মহড়া আন্তর্জাতিক আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, তাইওয়ানের উত্তর, দক্ষিণ-পশ্চিম ও উত্তরপূর্বাঞ্চলে যৌথভাবে আকাশ ও সমুদ্রে চীনের মহড়া চলবে। তাইওয়ান প্রণালীতে দীর্ঘ পাল্লার ‘লাইভ ফায়ারিং’ করা হবে।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/০৪ আগস্ট ২০২২

Back to top button