জাতীয়

নতুন ৪০ এসপির মধ্যে একমাত্র নারী নড়াইলের সাদিরা খাতুন

নড়াইল, ৪ আগস্ট – পুরুষের সঙ্গে সমানতালে এগিয়ে যাচ্ছে দেশের নারী পুলিশ। এরই মধ্যে আসীন হয়েছেন বাহিনীটির বিভিন্ন উচ্চপদে। নেতৃত্ব দিচ্ছেন বেশ কয়েকটি ইউনিটসহ জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে। বুধবার (৩ আগস্ট) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ-১ শাখা থেকে এক প্রজ্ঞাপনে বাংলাদেশ পুলিশের ৪০ জন কর্মকর্তাকে দেশের ৪০ জেলার নতুন পুলিশ সুপার (এসপি) হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

৪০ জন পুলিশ সুপারের মধ্যে একজন রয়েছেন নারী পুলিশ সুপার। তার নাম সাদিরা খাতুন। তাকে নড়াইল জেলার পুলিশ সুপারে হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি নড়াইল জেলার প্রথম নারী এসপি।

বর্তমানে আরও তিন জেলায় নারী পুলিশ সুপার হিসেবে জেলার দায়িত্বে রয়েছেন। তারা হলেন- গোপালগঞ্জে জেলা পুলিশ সুপার আয়েশা সিদ্দিকা, লালমনিরহাট জেলায় আবিদা সুলতানা ও কুড়িগ্রাম জেলায় সৈয়দা জান্নাত আরা।

এদিকে, একইদিনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ-১ শাখা থেকে পৃথক এক প্রজ্ঞাপনে ঝালকাঠি ও বান্দরবান জেলার দুইজন নারী পুলিশ সুপারকে বদলি করা হয়েছে। তারা হলেন- ঝালকাঠি জেলা পুলিশ সুপার বেগম ফাতিমা ইয়াসমিনকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) ও বান্দরবান জেলা পুলিশ সুপার বেগম জেরিন আখতারকে পুলিশের বিশেষ শাখায় (এসবি) বদলি করা হয়েছে।

পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ পুলিশে নারীর অগ্রযাত্রা শুরু হয় ১৯৭৪ সালে মাত্র ১৪ সদস্য নিয়ে। বর্তমানে পুলিশের সব ইউনিট মিলে কাজ করছেন ১৫ হাজারেরও বেশি নারী। চ্যালেঞ্জ নিয়ে তারা এগিয়ে যাচ্ছেন পুরুষ সহকর্মীদের সঙ্গে। থানা থেকে ট্রাফিক, কন্ট্রোল রুম থেকে মাঠের অপরাধ দমন ও নিরাপত্তা- সবখানেই তাদের পদচারণা। পিছিয়ে নেই জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনেও।

পুলিশ সদর দপ্তর থেকে শুরু করে পুলিশের সব ইউনিটেই নারী সদস্যরা কাজ করছেন। কয়েকটি ইউনিটের নেতৃত্বেও আছেন নারীরা। সারাদেশের আটটি ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার এবং ডিএমপির উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশন পরিচালনা করছেন নারী সদস্যরাই। সার্কেল এসপি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন অনেকে।

বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন নেটওয়ার্কের তথ্যমতে, বর্তমানে বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে কর্মরত মোট নারীর সংখ্যা ১৫ হাজার ২৩৯, যা বাংলাদেশ পুলিশের মোট জনবলের ৮ দশমিক

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ৪ আগস্ট ২০২২

Back to top button