দক্ষিণ এশিয়া

রাজনীতিতে নিষিদ্ধ হতে পারেন ইমরান ও তার দল

ইসলামাবাদ, ০৩ আগস্ট – পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন রায় দিয়েছে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) বিদেশ থেকে অবৈধ অর্থ নিয়েছে। সাত বছর মামলা চলার পর গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের তিন সদস্যের একটি ট্রাইব্যুনাল এই রায় দেন।

পিটিআইয়ের মুখপাত্র ও দেশটির গণমাধ্যম জানিয়েছে, এ রায়ের জেরে সাবেক এই ক্রিকেট তারকা ও তার দল রাজনীতিতে নিষিদ্ধ হতে পারে।

রায়ে বলা হয়েছে, পিটিআই ৩৪ বিদেশি নাগরিক বা বিদেশি কম্পানির কাছ থেকে অর্থ নিয়েছে, যা পাকিস্তানের আইনে অবৈধ।

এছাড়া দলটি করাচির শীর্ষ ব্যবসায়ী আরিফ নাকভির কাছ থেকেও অর্থ নিয়েছে। প্রাপ্ত তহবিল কেন বাজেয়াপ্ত করা হবে না, তা ব্যাখ্যা করার জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করেছে কমিশন।
ট্রাইব্যুনাল বলেছেন, দলটি তার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে একটি জাল হলফনামা জমা দিয়েছে। এ ছাড়া ১৩টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকার কথা বেমালুম গোপন করেছে।

এ প্রসঙ্গে ইমরান খানের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে পিটিআইয়ের মুখপাত্র ফাওয়াদ চেৌধুরী অবৈধ অর্থ পাওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন। এ রায়কে চ্যালেঞ্জ করা হবে বলেও জানান তিনি।

ফাওয়াদ বলেন, সব অর্থ বিদেশি পাকিস্তানিদের কাছ থেকে পাওয়া গেছে, যা বেআইনি নয়।

পিটিআইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগটি করেছিলেন দলটির প্রতিষ্ঠাতাদের একজন এবং ইমরান খানের একসময়ের ঘনিষ্ঠ সহযোগী আকবর এস বাবর। মামলার রায়কে তিনি স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, ইমরান খানের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। দল থেকে তার পদত্যাগ করা উচিত।

সূত্র: কালের কণ্ঠ
এম ইউ/০৩ আগস্ট ২০২২

Back to top button