জাতীয়

সরকারের বিরুদ্ধে যুগপৎ আন্দোলন করবে বিএনপি-গণফোরাম

ঢাকা, ০২ আগস্ট – বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো নিয়ে জাতীয় ঐক্য গড়া এবং সরকারের বিরুদ্ধে যুগপৎ আন্দোলনের বিষয়ে একমত হয়েছে বিএনপি ও গণফোরাম। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর আরামবাগে ইডেন গার্ডেনে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দুই দলের সংলাপ শেষে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ভয়াবহ দানবীয় এই সরকার দেশের সব অর্জন ধ্বংস করে দিচ্ছে। এই সরকারকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা এবং নির্বাচিত সংসদ তৈরি করতে তাঁরা একমত হয়েছেন। সব রাজনৈতিক দল নিয়ে যুগপৎ আন্দোলন করবেন তাঁরা।

ফখরুল বলেন, বৈঠকে খালেদা জিয়ার মুক্তি, ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর মামলা প্রত্যাহার, নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা, সব দলের মতামতের ভিত্তিতে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন এবং সেই কমিশনের পরিচালনায় সবার কাছে গ্রহণযোগ্য, অংশগ্রহণমূলক সুষ্ঠু নির্বাচনের বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সেই নির্বাচনের পরে আন্দোলনে অংশগ্রহণকারীদের জাতীয় সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে দেশে যে প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করা হয়েছে সেগুলোকে তৈরি করার ব্যাপারে একটা প্রস্তাবও তাঁরা দিয়েছেন।

গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন, সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে তাঁরা আলোচনা করে ঐকমত্যে পৌঁছেছেন। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচন জাতির কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে অতীতের অভিজ্ঞতার আলোকে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। নিরপেক্ষ নির্বাচন ও ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করে যাবেন তাঁরা।

বিএনপি মহাসচিব চার সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে গণফোরামের কার্যালয়ে যান। প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন- স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মনিরুল হক চৌধুরী ও মিডিয়া সেলের আহ্বায়ক জহির উদ্দিন স্বপন। সংলাপে মোস্তফা মোহসীন মন্টু আট সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। তাঁদের মধ্যে ছিলেন নির্বাহী সহসভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়িদ, অ্যাডভোকেট মহসিন রশিদ, মহিউদ্দিন আব্দুল কাদের ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী।

সরকারবিরোধী আন্দোলনে বৃহত্তর প্ল্যাটফর্ম গড়ে তুলতে বিএনপি গত ২৪ মে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে। এ পর্যন্ত ১৮টি দলের সঙ্গে সংলাপ করেছে তারা।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/০২ আগস্ট ২০২২

Back to top button