সচেতনতা

যে যে খাবার পুনরায় গরম করা উচিত নয়

ব্যস্ততার যুগে সব সময়ে তৎক্ষণাৎ রান্না করে গরম গরম খাওয়ার সময় থাকে না। রোজকার জীবনে সময় বাঁচানোর জন্য অনেক বাড়িতেই একসঙ্গে বেশি পরিমাণ রান্না করে ফ্রিজে রেখে দেওয়া হয় এবং পর পর গরম করে খাওয়া হয়। কিন্তু কিছু খাবার বারবার গরম করে খেলে খাবারের পুষ্টিগুণ যেমন কমে যায়, তেমনই বেড়ে যায় নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি।

চলুন জেনে নেওয়া যাক, কোন কোন খাবার ভুলেও পুনরায় গরম করা উচিত নয় –

আলুর তরকারি গরম করে খাওয়া উচিত নয়। এতে আলুর নিজস্ব পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, আলুর তরকারি পুনরায় গরম করা খেলে পেটের সমস্যা হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যায়।

ডিমের কোনও তরকারি পুনরায় গরম করে খাওয়া ভাল নয়। কারণ ডিমের মতো উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার দ্বিতীয় বার গরম করলে তার প্রোটিন নষ্ট হয়ে যায় এবং ডিমের মধ্যেই ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া জন্মায়। এতে শরীর খারাপ হতে পারে।

মাশরুমের তরকারিও গরম করে খেতে নেই। দ্বিতীয়বার গরম করে খেলে তা আমাদের পেটের জন্য অনেক ক্ষতিকর। অনেক ক্ষেত্রে হার্টেও প্রভাব ফেলে।

শুনতে আশ্চর্য লাগলেও এটা সত্য যে, পুনরায় গরম করা ভাত খেলে বমি ও ডায়রিয়া হতে পারে। গরম ভাত যত ঠান্ডা হতে থাকে তত নানা ব্যাক্টেরিয়া জন্মায়। সেই ঠান্ডা হওয়া ভাত যদি আবার গরম করা হয়, তবে ব্যাক্টেরিয়াগুলির ক্ষতিকারক প্রভাব আরও বেড়ে যায়।

গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে, পালং শাকের তরকারি গরম করে খেলে শরীরে কার্সিনোজেনিক এলিমেন্ট বা ক্যান্সার সৃষ্টিকারী উপাদানের পরিমাণ বেড়ে যায়। পালং শাকে উপস্থিত নাইট্রেট গরম করার পর নাইট্রাইটস-এ রূপান্তরিত হয়ে যায়। আর এই উপাদানটি শরীরের পক্ষে একেবারেই ভাল নয়।

মুরগির মাংসে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে। তাই, রান্নার পরে আবার তা গরম করলে প্রোটিনের কম্পোজিশন বদলে গিয়ে তা থেকে বদহজম হতে পারে। ডায়রিয়া এবং বমিও হতে পারে।

মুন/৩০ জুলাই

Back to top button