দক্ষিণ এশিয়া

বিক্ষোভ মিছিল থেকে রাহুল গান্ধী আটক

নয়াদিল্লি, ২৬ জুলাই – দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিসহ অন্যান্য ঘটনার প্রতিবাদে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে কংগ্রেসের বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধীকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জিএসটি বৃদ্ধিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ থেকে তাকে আটক করা হয়।

এনডিটিভি বলছে, জিএসটি বৃদ্ধিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে মঙ্গলবার রাজধানী দিল্লির কেন্দ্রস্থলে বিক্ষোভে অংশ নেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। মূল্যবৃদ্ধিসহ বিভিন্ন বিষয়ে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন তিনি।

এসময় বিপুল সংখ্যক পুলিশ কংগ্রেসের এই প্রতিবাদস্থল ঘিরে রাখে। প্রায় ৩০ মিনিট পর রাহুল গান্ধীকে আটক করেন পুলিশ সদস্যরা। আটকের পর তাকে বাসে তুলে নেয়া হয়।

আটকের আগে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘ভারত একটি পুলিশি রাষ্ট্র, (প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি) একজন রাজা।’

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, রাহুল গান্ধী মঙ্গলবারের এই বিক্ষোভের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। তবে (বিক্ষোভস্থলে) তিনিই কার্যত শেষ ব্যক্তি ছিলেন যখন পুলিশ তাকে আটক করবে কি না তা নিয়ে আলোচনা করছিল।

এসময় রাহুল গান্ধী ছাড়াও আটক করা হয়েছে মল্লিকার্ঝুল খাড়গে, কেসি বেণুগোপাল, শক্তিসিংহ গোহিল-সহ বেশ কয়েকজন সাংসদকে। এই সমস্ত কংগ্রেস সাংসদরা প্রতিবাদ মিছিল করে সংসদ থেকে রাষ্ট্রপতি ভবনে যাচ্ছিলেন, তখনই তাদের আটক করা হয়।

উল্লেখ্য, ইডির এই অমানবিক জিজ্ঞাসাবাদের বিরুদ্ধে কংগ্রেস সারাদশে সত্যাগ্রহের ডাক দেয়। এনফোর্সমেন্ট জিরেক্টরেট বা ইডি দিল্লির অফিসে সোনিয়া গান্ধী ডেকে দ্বিতীয়বার জিজ্ঞাসাবাদ করছে মঙ্গলবার সকাল থেকে। তার হাজিরার পর থেকে দেশজুড়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ প্রদর্শন চলছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/২৬ জুলাই ২০২২

Back to top button