দক্ষিণ এশিয়া

পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলিতে এখন ইমরানের দলের অবস্থান কোথায়?

ইসলামাবাদ, ১৮ জুলাই – পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের উপনির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পর প্রদেশটিতে এখন বেশ সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। সেখানে এখন মুখ্যমন্ত্রী হামজা শাহবাজ শরিফকে সরিয়ে সামনের দিনে নতুন মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন চৌধুরী পারভেজ ইলাহী। খবর জি নিউজের।

ওই প্রদেশে হওয়া উপনির্বাচনের ২০ আসনের ১৫টিতেই জয় পেয়েছেন পিটিআইয়ের প্রার্থীরা। চার আসন পেয়েছে পিএমএল-এন ও বাকি আসনটি পেয়েছেন স্বতন্ত্র এক প্রার্থী।

নির্বাচনের আগেই পিটিআই ও পিএমএল-কিউর যৌথভাবে ১৭৩টি আসন ছিল (১৬৩টি পিটিআইয়ের ও ১০টি পিএমএল-কিউর)। বর্তমানে নতুন পাওয়া ১৫টি আসনসহ তাদের মোট আসন সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ১৮৮-তে। যদিও সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য দরকার হয় ১৮৬ আসন। এর অর্থ হলো—পিটিআই ও পিএমএল-কিউর এখন স্পষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। আর উপনির্বাচনে জয়ী স্বতন্ত্রপ্রার্থী হয়তো ক্ষমতাসীনদের সঙ্গে যোগ দেবেন।

অপরদিকে ক্ষমতাসীন জোটের আসন সংখ্যা ১৭৯। পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলিতে দ্বিতীয় বৃহত্তম দল পিএমএল-এনের আসন সংখ্যা ১৬৪ (নতুন চার আসনসহ), পিপিপির সাত, স্বতন্ত্র তিনজন এবং একটি আসন পাকিস্তান রাহ-ই-হক পার্টির।

এদিকে পিএমএল-এনের দুইজন পদত্যাগ করার কারণে অ্যাসেম্বলিতে ৩৭১ আসনের মধ্যে দুটি খালি রয়েছে।

রোববার পাঞ্জাব প্রদেশের ১৪টি জেলায় এই উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। পিটিআই’র ২৫ সদস্য দলীয় নির্দেশনা অমান্য করে গণপরিষদে মুখ্যমন্ত্রী পদে পিএমএল-এনর প্রার্থী হামজা শাহবাজকে ভোট দেয়। তাদের মধ্যে ২০ জন ছিলেন নির্বাচিত এবং ৫ জন সংরক্ষিত আসনের সদস্য। দলীয় নির্দেশ অমান্য করায় পরে তাদের আসনগুলো শূন্য ঘোষণা করা হয়।

এই নির্বাচনে ইতোমধ্যেই নিজেদের পরাজয় স্বীকার করে নিয়েছে মুসলিম লিগ। এ ছাড়া জনগণের রায়কে মেনে নেবেন বলে জানিয়েছেন মরিয়ম নওয়াজ।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১৮ জুলাই ২০২২

Back to top button