জাতীয়

এবার দেখেশুনে মুখ খুলব: পি কে হালদার

কলকাতা, ১৫ জুলাই – বাংলাদেশ থেকে তিন হাজার ৬০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ মাথায় নিয়ে পালিয়ে গিয়ে ভারতে গ্রেপ্তার হওয়া এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদার (পি কে হালদার) ২৫ দিনের জন্য জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের আদালত।

শুক্রবার (১৫ জুলাই) পিকে হালদার এবং তার পাঁচ সহযোগীর মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ১০ আগস্ট দিন ধার্য করেন ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (সিবিআই) তিন নম্বর আদালতে বিচারপতি জীবনকুমার সাধু।

এদিন বেলা ১১টায় ব্যাঙ্কশালের বিশেষ সিবিআই আদালতে তাদেরকে নেওয়া হয়। দুপুর ১২টার দিকে তাদেরকে বিচারকের এজলাসে তোলা হয়। শুনানি শেষে আদালত পরবর্তী শুনানির জন্য নতুন দিন ধার্য করেন এবং পি কে হালদারের মেডিকেল পরীক্ষার প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন।

এদিন আদালতের এজলাস থেকে কোর্ট লকআপে নেওয়ার সময় সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে পি কে হালদার বলেন, আজ চার্জশিট হাতে পেয়েছি। এবার দেখেশুনে মুখ খুলব। তার আগে না।

এর আগে, গত ১২ জুলাই আদালতে পি কে হালদার এবং তার পাঁচ সহযোগীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

উল্লেখ্য, সাড়ে তিন হাজার কোটির বেশি টাকা আত্মসাৎ করে বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে যান পি কে হালদার। গত ১৪ মে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলা থেকে পি কে হালদারকে গ্রেপ্তার করে ভারতের আর্থিক দুর্নীতিসংক্রান্ত তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। তারা পি কে হালদারের পাঁচ সহযোগীকেও গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের আগে রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে পি কে হালদারের প্রাসাদসম বাড়িসহ অনেক সম্পদের সন্ধান পায়।

গত ৭ জুন ইডি আদালতকে জানায়, পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের বিভিন্ন এলাকায় পি কে হালদারসহ তার সহযোগীদের ৮৮টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সন্ধান পেয়েছে তারা। পি কে হালদার ও তার সহযোগীদের ৩০০ কোটি টাকার সম্পদ পাওয়ার কথাও আদালতকে জানিয়েছেন ইডি।

সূত্র: আরটিভি

Back to top button