দক্ষিণ এশিয়া

মালদ্বীপেও বিক্ষোভের মুখে গোটাবায়া

মালে, ১৩ জুলাই – রাতের আঁধারে সামরিক প্লেনে দেশ থেকে পালানো লঙ্কান প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে মালদ্বীপেও বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন। বুধবার কয়েক ডজন মানুষ তাকে আশ্রয় না দেওয়ার জন্য মালদ্বীপ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর জানিয়েছে।

শ্রীলঙ্কার প্রবাসীরা পতাকা ও প্ল্যাকার্ড হাতে গোটাবায়াকে প্রত্যাখ্যান করেন। দ্বীপটিতে কর্মরত এক লঙ্কান নাগরিক বলেন, মালদ্বীপের বন্ধুরা, আপনাদের সরকারকে আহ্বান জানান অপরাধীদের যেনও রক্ষা না করা হয়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, ভেলানা বিমানবন্দরে সামরিক প্লেনে অবতরণের পর যখন গোটাবায়া হাঁটছিলেন তখন তাকে লক্ষ্য করে কয়েকজন উচ্চস্বরে অপমানজনক কথা বলেন।

গোটাবায়া একটি বিলাসবহুল রিসোর্টে অবস্থান করছেন। বুধবার তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাত বা সিঙ্গাপুরে চলে যেতে পারেন তিনি।

মালদ্বীপে গোটাবায়ার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ। ছবি-এনডিটিভি

কলম্বো থেকে শ্রীলঙ্কার একটি গোয়েন্দা সূত্র এএফপিকে বলেছে, তিনি এই দুটি জায়গার একটিতে নির্বাসিত হতে পারেন। নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে চ্যালেঞ্জ। কারণ, উভয় দেশেই লঙ্কান মানুষ বসবাস করেন।

বেসামরিক প্লেন ও সমুদ্রপথে চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পর অবশেষে সামরিক প্লেনে করে দেশ ছেড়ে পালান গোটাবায়া রাজাপাকসে। ৭৩ বছর বয়সী এই নেতা স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে মালদ্বীপের রাজধানী মালে পৌঁছান।

গত শনিবার বিক্ষোভকারীরা বাসভবনে ঢুকে পড়ার পর থেকেই পালিয়ে ছিলেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট। পালানো অবস্থাতেই ঘোষণা দেন বুধবার (১৩ জুলাই) পদত্যাগ করবেন তিনি।

দেশটিতে চলতে থাকা অর্থনৈতিক সংকটের জন্য প্রেসিডেন্ট রাজাপাকসের পরিবারকে দায়ী করছে শ্রীলঙ্কার সাধারণ মানুষ। গত কয়েক মাস ধরেই এসব মানুষ দীর্ঘ লোডশেডিং, জ্বালানি, খাবার ও ওষুধের সংকটে ভুগছে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
এম ইউ/১৩ জুলাই ২০২২

Back to top button