ইউরোপ

খেরসন পুনরুদ্ধারের মিশনে নেমেছে ইউক্রেন

কিয়েভ, ১৩ জুলাই – রাশিয়ার দখল করে নেওয়ার দুই মাস পর ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রশাসনিক কেন্দ্র খেরসন পুনরুদ্ধারের মিশনে নেমেছে ইউক্রেন।

এরই অংশ হিসেবে গত সোমবার সন্ধ্যায় শহরটির নোভায়া কাখোভকাতে দূরপাল্লার রকেট হামলা চালিয়েছে কিয়েভ বাহিনী। এতে সাতজনের মৃত্যু ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন- রাশিয়ার পক্ষ থেকে এমনটা দাবি করা হলেও ইউক্রেন বলছে, মৃতের সংখ্যা অন্তত ৫২।

তাদের দাবি, ওই অঞ্চলে রাশিয়ার একটি গোলাবারুদ ডিপোতে রকেট হামলা চালানো হয়েছে, যাতে অর্ধশতাধিক রুশ সেনার মৃত্যু হয়েছে। রাশিয়ার কাছে হাতছাড়া হয়ে যাওয়া অঞ্চলটি পুনরায় দখলে নিতে আরও কয়েক হাজার সেনা ব্যবহার করে পাল্টা আক্রমণের পরিকল্পনা করছে কিয়েভ। ওই হামলায় ভবন ছাড়াও সারের গুদামে বিস্ম্ফোরণ ঘটে।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে এইচআইএমএআরএস মোবাইল আর্টিলারি সিস্টেম দেওয়ার পরই এ হামলা করল ইউক্রেন। কিয়েভ বলছে, তাদের সেনারা এখন আরও বেশি কার্যকরভাবে এটি ব্যবহার শুরু করছে।

ইউক্রেনের দক্ষিণ সামরিক কমান্ড বিবৃতিতে বলেছে, রকেট এবং আর্টিলারি ইউনিটের ফলাফলের ভিত্তিতে ৫২ সেনা, একটি হাউইটজার, একটি মর্টার, সাতটি সাঁজোয়া ও অন্যান্য যান, সেই সঙ্গে নোভা কাখোভকায় একটি গোলাবারুদের ডিপো হারিয়েছে রাশিয়া।

এদিকে, খেরসন অঞ্চলের কাখোভকা জেলার সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের প্রধান ভদ্মাদিমির লিওন্তিয়ভে বলেছেন, দুর্ভাগ্যবশত সেখানে ব্যাপক হতাহত হয়েছে। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গোটা শহরই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বলছেন, তারা দক্ষিণের খেরসন পুনরুদ্ধারে অন্তত ১০ লাখ সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কারণ, অঞ্চলটি অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক কারণে গুরুত্বপূর্ণ।

সূত্র : যুগান্তর
এম এস, ১৩ জুলাই

Back to top button