ফুটবল

পরকীয়ার জেরে সংসারে ভাঙন ইতালিয়ান কিংবদন্তির

ফ্রান্সেসকো টট্টি, ইতালিয়ান ফুটবলারের এই কিংবদন্তির ১৭ বছরের সংসার ভেঙে গেছে। পরকীয়ার জেরে স্ত্রী ইলারি ব্লাসির সঙ্গে ২০ বছর পর আলাদা হয়ে গেছেন টট্টি।

২০০২ সালে প্রথমবারের মতো দেখা হয় টট্টি ও ব্লাসির। তিন বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০০৫ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন দুইজনই। অবশেষে দীর্ঘ ১৭ বছর পর তিন সন্তান থাকা সত্ত্বেও বিচ্ছেদের পথ বেছে নিলেন।

এই সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পেছনে বড় কারণ, টট্টির অন্য জায়গায় প্রেমের গুঞ্জণ। গত একমাস ধরে যা ভেসে বেড়াচ্ছিল ইতালিয়ান গণমাধ্যমগুলোতে। যদিও টট্টি বারবার প্রেমের বিষয় অস্বীকার করেই আসছিলেন। তবুও শেষ পর্যন্ত এক ছাদের নিচে থাকা হলো না টট্টি এবং ব্লাসির।

সম্পর্কের বিচ্ছেদ নিয়ে টট্ট্রির স্ত্রী ইতালিয়ান টিভি প্রেজেন্টার ব্লাসি বলেন, ’২০ বছর একসাথে থাকার পর, তিনটা দারুণ সন্তান থাকার পরও, আমার সঙ্গে ফ্রান্সেসকো টট্টির সম্পর্ক শেষ। যাই হোক, এই বিচ্ছেদটা ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত এবং আমি এই বিষয়ে আর কিছু বলব না। আমি সবাইকে অনুরোধ করব, আপনারা মনগড়া কিছু বলবেন না এবং আমার পরিবারের গোপনীয়তা বজায় রাখতে সাহায্য করবেন।’

নিজের সম্পর্কের বিচ্ছেদ নিয়ে টট্টি বলেন, ‘আমি চেয়েছিলাম আমার বৈবাহিক সম্পর্কের দুরবস্থা কাটিয়ে তুলতে। বিচ্ছেদের পথ বেছে নেওয়া খুবই দুঃখের কিন্তু উপায়ও নেই।

টট্টি-ব্লাসির সংসারে ক্রিশ্চিয়ান, চ্যানেল এবং ইসাবেল নামের তিন সন্তান রয়েছে। টট্টি ২০০৬ সালে ইতালির হয়ে বিশ্বকাপ জিতেছিলেন। জাতীয় দলের জার্সিতে খেলেছিলেন ৫৮ ম্যাচ। তবে টট্টিকে মূলত রোমার কিংবদন্তি বলা হয়। যেখানে তিনি ক্যারিয়ারের পুরোটা সময় ২৮ বছর ধরে ফুটবল খেলেছিলেন।

সূত্র : আরটিভি
এম এস, ১২ জুলাই

Back to top button