জানা-অজানা

করোনায় মানুষের গড় আয়ু কমে গেছে

সম্প্রতি প্রকাশিত জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনার কারণে মানুষের গড় আয়ু কমেছে। করোনার কারণে ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী গড় আয়ু ৭২.৮ থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ৭১-এ। তবে নারীদের গড় আয়ু পুরুষের তুলনায় বেশি বলে ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত ১ জুলাই জাতিসংঘ মানুষের গড় আয়ু নিয়ে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী ৯ বছর বিশ্বব্যাপী গড় আয়ু আরও কমবে। নারীদের গড় আয়ু ৭৩.৮, সেখানে পুরুষদের ৬৮.৪। প্রত্যেক দেশে নারীদের আয়ু অনেক বেশি। লাতিন আমেরিকায় এ আয়ু গড়ে ৭ বছর বৃদ্ধি পেয়েছে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে হয়েছে ২.৯ বছর।

প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, বিশ্বে নারী ও পুরুষের মধ্যে গড় আয়ুর ব্যবধান অনেক বেশি। গত তিন দশকে কিছুটা কমলেও, ২০২১ সালে সেই ব্যবধান বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫.৪ বছরে। মানুষের গড় আয়ু সবচেয়ে বেশি অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে। সবচেয়ে কম আফ্রিকার সাহারা অঞ্চলে। মধ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায় গড় আয়ু ৬৭.৭ বছর। আয়ু কমার ক্ষেত্রে অতিমারিকে দায়ী করা হয়েছে। বলিভিয়া, লেবানন, মেক্সিকো, ওমান এবং রাশিয়ার মতো দেশগুলোতে ২০১৯ এবং ২০২২ সালের মধ্যে গড় আয়ু চার বছরের বেশি কমেছে।

এছাড়া গড় আয়ুতে স্বল্পোন্নত দেশগুলোর পিছিয়ে থাকার কারণ হিসেবে বেশ কয়েকটি বিষয়কে উল্লেখ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে। মূলত মা ও শিশু মৃত্যুর সংখ্যা বেশি হওয়ার জন্যই পিছিয়ে পড়ার অন্যতম কারণ হিসেবে বলা হয়েছে। কয়েকটি দেশে সংঘাত এবং সেই সঙ্গে কোভিডের প্রভাব গড় আয়ু কমার বিষয়টিকে ত্বরান্বিত করেছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে কোভিডের ফলে বিশ্বজুড়ে মানুষের গড় আয়ু কমেছে বলে জানিয়েছিলো অক্সফোর্ডের একটি গবেষণা। যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এই প্রথম। বিশ্বের মোট ২৯টি দেশের ওপর চালানো হয়েছিলো সেই গবেষণা।

এম ইউ/১২ জুলাই ২০২২

Back to top button