ক্রিকেট

বাংলাদেশে হতে পারে এশিয়া কাপ, বিসিবি জানে না কিছু

ঢাকা, ১২ জুলাই – রাজনৈতিক অস্থিরতা ও অর্থনৈতিক সংকটের কারণে শ্রীলঙ্কায় এশিয়া কাপ আয়োজন নিয়ে সম্প্রতি নাটকীয় মোড় নিয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যমের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগস্টে এশিয়া কাপের আয়োজক হবার জন্য বাংলাদেশকে স্ট্যান্ড-বাই রেখেছে এশিয়া ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) । যদিও বিসিবি দাবি, এমন কিছু শোনেননি তারা।

এশিয়া কাপের ১৫তম আসরের আয়োজক শ্রীলংকা। কিন্তু এ মাসের শেষের দিকে এশিয়া কাপ আয়োজন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্বান্ত নেবে এসিসি। বিসিবিও সেই সভার দিকে তাকিয়ে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দীন চৌধুরী এসিসি সভা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চাইলেন, ‘মূলত এসিসি থেকেই এশিয়া কাপের সিদ্ধান্ত আসবে। এখন পর্যন্ত যা জানি- শ্রীলঙ্কাই আয়োজন করছে। ইতোমধ্যে অস্ট্রেলিয়া শ্রীলঙ্কা সফর করেছে। তাদের হোস্টিংয়ের চ্যালেঞ্জ হয়ত কাটিয়ে উঠেছে।’

‘আমরা আশা করছি নির্ধারিত সময়েই এশিয়া কাপ হবে। বাংলাদেশের সাথে ভারত-পাকিস্তানের মত হাই প্রোফাইল দলগুলোও যাবে। তাই আমাদের চেয়ে এসিসিই এটা নিয়ে বেশি ভাবছে। আশা করি বিষয়টা তারা সেভাবেই সামাল দিবে।’

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, শ্রীলংকার পরিস্থিতির আরও অবনতি হলে, এশিয়া কাপ নিয়ে কোন সুযোগ নিতে চায় না এসিসি।

সম্প্রতি, শ্রীলংকার রাষ্ট্রপতির বাসভবনে ঢুকে পড়েছে দ্বীপরাষ্ট্রটির বিক্ষুদ্ধ জনগণ। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন জ্বালিয়েও দেয় তারা। এরপরই পদত্যাগে সম্মত হয়েছেন তারা।

গতকাল শেষ হওয়া অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলংকা টেস্ট চলাকালীন, মাঠের কাছাকাছি চলে আসে বিক্ষোভকারীরা। বিদেশি খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা এখন বড় ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভারতীয় আরেকটি সংবাদমাধ‌্যম দৈনিক জাগরণের বরাত দিয়ে একটি সূত্র বলেছে, শ্রীলংকার বর্তমান পরিবেশে ক্রিকেট খেলতে নিরাপদ বোধ করবেন না ভারতীয় ক্রিকেটাররা। এখন এমন পরিস্থিতিতে এ বছরের এশিয়া কাপ শ্রীলংকায় আয়োজন সম্ভব নয়। তাই আগামী আসরে আয়োজক হবার ক্ষেত্রে এগিয়ে বাংলাদেশই। কারণ এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে আগ্রহী নয় ভারত। আর পাকিস্তানে টুর্নামেন্ট হলে সেখানে খেলতে যাবে না ভারত।

২০১৮ সালে সবশেষ এশিয়া কাপ হয়েছিল ওয়ানডে ফরম্যাটে। সেবার বাংলাদেশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত। ২০২০ সালে টুর্নামেন্টটি হওয়ার কথা থাকলেও মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে তা হয়নি। আর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট হয়েছিল ২০১৬ সালে, বাংলাদেশে। সেবারও বাংলাদেশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত।

২০২০ এশিয়া কাপ আয়োজন করার কথা ছিল শ্রীলঙ্কার। করোনার কারণে পিছিয়ে ২০২১ সালে হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত হয়নি। অবশেষে ২০২২ সালে হচ্ছে সেটি। অন্যদিকে এশিয়া কাপ ২০২২ আসরের আয়োজক ছিল পাকিস্তান। কিন্তু তাদের ২০২৩ এশিয়া কাপ আয়োজন করার কথা রয়েছে।

এবারের এশিয়া কাপে বাংলাদেশ, শ্রীলংকা, ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং অন্য একটি এশিয়ান দল অংশ নিবে। বাছাই পর্ব থেকে অন্য একটি এশিয়ান দলকে নেয়া হবে। বাছাই পর্বে খেলবে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, সিঙ্গাপুর বা হংকং। এখনও আসরের সূচী চূড়ান্ত হয়নি। তবে প্রাথমিকভাবে চূড়ান্ত হয়েছে, ২৭ আগস্ট থেকে ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হবে এশিয়া কাপ।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ১২ জুলাই

Back to top button