ঢালিউড

৩ হাজার মানুষের মধ্যে কোরবানির মাংস বিতরণ করেন ডিপজল

ঢাকা, ১১ জুলাই – মনোয়ার হোসেন ডিপজলকে চলচ্চিত্রের পর্দায় ইতিবাচক ও নেতিবাচক দুই চরিত্রেই দেখা গেছে। তবে খল-অভিনেতা হিসেবেই অধিক পরিচিত তিনি।

পর্দার এই মানুষটি প্রতি বছর ১০-১২টি গরু কোরবানি দেন। এবারো এর ব্যতিক্রম হয়নি। ডিপজল বলেন, ‘প্রতিবার যা করি, এবারও আমার বাড়িতে ঈদের আয়োজন সেভাবেই হয়েছে। ঈদের নামাজ পড়ে কোরবানি দেই। মাংসগুলো ব্যাগে ভরে প্রায় ৩ হাজার মানুষের মধ্যে বিতরণ করা হয়। আমরা এ কাজটি নিয়মিত করি। এ ছাড়া আত্মীয়-স্বজন, বিশেষ করে বোনেদের বাসায় কোরবানির মাংস পাঠাই।’

সিনেমার মানুষদের সঙ্গে কোরবানির ঈদ কাটানোর প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডিপজল বলেন, ‘মিরপুরে গরু কাটা হয়। সেখানে আমার আরো দুই ভাই গরু কাটেন। তারাও ৮-১০টা গরু কোরবানি দেন। সেখানে সিনেমার পরিচিত ও কাছের মানুষজন আসেন।’

এদিকে মনোয়ার হোসেন ডিপজলের একমাত্র মেয়ে ওলিজা মনোয়ার কোরবানির ঈদের স্মৃতি স্মরণ করে বলেন, আমার যখন ছোট ছিলাম তখন কাজিনদের সঙ্গে মিরপুর মসজিদে নামাজ পড়তে যেতাম। ঈদগাহ থেকে বাবা ফিরে এসে আমাদের হাতে বানানো বিশেষ খাবার খেতেন। এখনও প্রত্যেক ঈদে বাবার জন্য বিভিন্ন পদের খাবার রান্না করি।’

‘আমরা মুসলিমদের পাশাপাশি হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের মধ্যেও খাসির মাংস বিতরণ করি। এ ছাড়া উটের মাংসও বিতরণ করি।’ বলেন ওলিজা মনোয়ার।

এম এস, ১১ জুলাই

Back to top button