চট্টগ্রাম

নগরীর ৯০ শতাংশ বর্জ্য অপসারণ হয়েছে: চসিক মেয়র

চট্টগ্রাম, ১০ জুলাই – চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকার ৯০ শতাংশ কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। রোববার বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর আলমাস সিনেমা হলের মোড় এলাকায় বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ কথা জানান।

চসিক সূত্রে জানা যায়, কোরবানি শেষে সকাল ৯টা থেকে পরিত্যক্ত বর্জসমূহ অপসারণে মাঠে নামে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) পরিচ্ছন্নতা বিভাগ। পশু জবাইয়ের জন্য চসিকের পক্ষ থেকে নগরের ৩০৪টি জায়গা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। কিন্তু সেসকল জায়গায় কোরবানির জন্য তেমন একটা সাড়া দেননি নগরবাসী। বেশিরভাগই মানুষ কোরবানি করেছেন সড়কের আশেপাশে বা গলিতে। এসকল বর্জ্য অপসারণ করার কাজে মাঠে ছিলেন সিটি কর্পোরেশনের ৫ হাজার কর্মী ও ৩৪৫টি গাড়ি। কোরবানির ২৪ হাজার টন বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে সাত ঘণ্টায় ৯০ শতাংশ বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব হয়েছে।

চসিক মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম নগরীকে ছয়টি জোনে ভাগ করে বর্জ্য অপসারণ করা হচ্ছে। ছয়জন কমিশনারকে ছয়টি জোনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেক ওয়ার্ড কাউন্সিলররাও নিজ নিজ ওয়ার্ড পরিষ্কার করার বিষয়টি তদারকি করছেন।

তিনি বলেন, আগামীকালও কোরবানি করবে নগরবাসী। আমাদের পরিচ্ছন্ন কাজে নিয়োজিত থাকা কর্মীরা আগামীকালও পরিষ্কার করার কাজে নিয়োজিত থাকবে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি ও কাউন্সিলর মোবারক আলী বলেন, আমরা এখনো মোবাইল টিমের মাধ্যমে খোঁজ নিচ্ছি, প্রতিটি ওয়ার্ডে সেই টিম তদারকি করছে যে কোথাও বর্জ্য অপসারণ করা বাকি রয়েছে কিনা। দুপুরের পরে যেগুলো কোরবানি করা হয়েছে সেগুলোও অপসারণের কাজ চলমান। প্রায় শেষ পর্যায়ের দিকে। তবে সকালের কোরবানি বর্জ্য শতভাগ অপসারণ করা সম্ভব হয়েছে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ১০ জুলাই

Back to top button