জাতীয়

প্রতি পিস খাসির চামড়া ৫ টাকা!

ঢাকা, ১০ জুলাই – রাজধানীর দক্ষিণ পাইকপাড়া থেকে দুটি খাসির চামড়া বিক্রি করতে কল্যাণপুরের নতুন বাজারে আসেন মুদি ব্যবসায়ী জাফর আহমেদ। তবে চামড়ার দাম শুনে মেজাজ হারান তিনি। ব্যবসায়ীরা প্রতিপিস খাসির চামড়া পাঁচ টাকা ও প্রতিপিস গরুর চামড়া সাড়ে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা বলছেন।

রোববার (১০ জুলাই) সকালে ঈদুল আজহার নামাজের পরই শুরু হয় পশু কোরবানি। দুপুরের পর মৌসুমি ব্যবসায়ীরাও চামড়া কিনতে শুরু করেন। তবে এবার খাসির চামড়া কিনতে তেমন আগ্রহ নেই ব্যবসায়ীদের। ফলে অনেকেই খাসির চামড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন।

জাফর আহমেদ বলেন, ছাগলের চামড়ার যে দাম বলা হচ্ছে তা খুবই কম। ৩০ টাকা রিকশা ভাড়া দিয়ে এখানে এলাম। এখন তো দেখি রিকশা ভাড়াও উঠবে না।

চামড়া ব্যবসায়ী নুর মোহাম্মদ বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরে ছাগলের চামড়ার দাম কম। এবার ৬০০ পিস খাসির চামড়া পেয়েছি। আর ৫০-৬০ পিস গরুর চামড়া পেয়েছি। গতবার চামড়া বিক্রি করে হাজার তিনেক টাকা লাভ ছিল। এবার কী হয় বলতে পারছি না।

গতবছরের তুলনায় প্রতি বর্গফুটে ৭ টাকা বাড়িয়ে কোরবানির গরু ও খাসির চামড়ার দাম নির্ধারণ করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এবার কোরবানির গরুর লবণযুক্ত চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ঢাকাতে ৪৭ থেকে ৫২ টাকা প্রতি বর্গফুট। গত বছর ঢাকায় গরুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয়েছিল ৪০ থেকে ৪৫ টাকা। আর ঢাকার বাইরে গরুর চামড়ার দাম হবে প্রতি বর্গ ফুটে ৪০ থেকে ৪৪ টাকা, যা গত বছর ছিল ৩৩ থেকে ৩৭ টাকা। খাসির চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি বর্গফুটে ১৮ থেকে ২০ টাকা। খাসির চামড়া সারাদেশে একই দামে বিক্রি হবে। গত বছর খাসির চামড়ার দাম ছিল ১৫ থেকে ১৭ টাকা।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/১০ জুলাই ২০২২

Back to top button