জাতীয়

সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠনে পরিকল্পিত জনসংখ্যা গুরুত্বপূর্ণ: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, ০৮ জুলাই – সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠনে পরিকল্পিত জনসংখ্যা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের মতো অন্যান্য মৌলিক অধিকার পূরণের জন্য এ পরিকল্পনা দরকার। জনসংখ্যা ও উন্নয়ন একে অপরের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত। দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি টেকসই করতে হলে সে দেশের জনসংখ্যা হতে হবে পরিকল্পিত। এমনটাই মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১১ জুলাই ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২২’ উপলক্ষে দেওয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কোনো দেশের জনসংখ্যা আয়তনের তুলনায় বেশি হলে প্রতিটি সেক্টরে এর প্রভাব পড়বে। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের মতো অন্যান্য মৌলিক অধিকার পূরণের পাশাপাশি সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠনে পরিকল্পিত জনসংখ্যা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

প্রতি বছরের মতো এবারও বাংলাদেশে ১১ জুলাই ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২২’ পালনে প্রধানমন্ত্রী আনন্দিত উল্লেখ করে বলেন, দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘৮০০ কোটির পৃথিবী: সকলের সুযোগ, পছন্দ ও অধিকার নিশ্চিত করে প্রাণবন্ত ভবিষ্যৎ গড়ি’-অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সরকার পরিকল্পিত জনসংখ্যা তথা পরিকল্পিত পরিবার গঠনের মাধ্যমে জনগণের সুযোগ, পছন্দ ও অধিকার নিশ্চিত করে প্রাণবন্ত ভবিষ্যৎ গড়তে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। প্রতি ৬ হাজার জনগোষ্ঠীর জন্য একটি করে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপনের মাধ্যমে গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।

এসময় প্রধানমন্ত্রী সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা ব্যক্ত করে বলেন, এসব উদ্যোগের ফলে মাতৃ ও শিশুমৃত্যু হার হ্রাস পেয়েছে এবং পরিকল্পিত পরিবারের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী সবাইকে কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জীবনযাপন করতে বলেন।

সূত্র : আরটিভি
এম এস, ০৮ জুলাই

Back to top button