জাতীয়

গায়ে আগুন দেয়া আনিসুরের দাফন সম্পন্ন

কুষ্টিয়া, ০৬ জুলাই – রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় গায়ে আগুন দিয়ে মারা যাওয়া ব্যবসায়ী গাজী আনিসুর রহমানের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রাত পৌনে ১২টার দিকে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রাত ১১টা ১৫ মিনিটের দিকে আনিসুরের লাশ গ্রামের বাড়িতে পৌঁছায়। রাত ১১টা ২৫ মিনিটে পান্টি জামে মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা–কর্মীরা অংশ নেন। রাত পৌনে ১২টায় পান্টি কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

এর আগে সোমবার (৪ জুলাই) বিকেল পাঁচটার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় আনিসুর নিজের গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) সকালে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

গাজী আনিসুর কুমারখালীর পান্টি গ্রামের মৃত ইব্রাহীম হোসেনের ছেলে। তিনি ঠিকাদারি ব্যবসা করতেন বলে জানা গেছে। গাজী আনিসুরের মৃত্যুর পর গতকাল দুপুরে হেনোলাক্স কোম্পানির চেয়ারম্যান নুরুল আমিন ও তার স্ত্রী ফাতেমা আমিনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে তার (আনিসুর) ভাই নজরুল ইসলাম মামলা করেছেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গাজী আনিসুর রহমানের কাছ থেকে হেনোলাক্সের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী মোটা অঙ্কের অর্থ নিয়ে ফেরত দেননি। এ কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

মামলার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে আমিন ম্যানুফাকচারিং কোম্পানির (হেনোলাক্স গ্রুপ) মালিক নুরুল আমিন এবং তার স্ত্রী ফাতেমা আমিনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ০৬ জুলাই

Back to top button