ইউরোপ

খরা ভেঙেছে ৭০ বছরের রেকর্ড, জরুরি অবস্থা জারি ইতালিতে

রোম, ০৫ জুলাই – সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ক্রমবর্ধমান খরার কারণে ইতালির উত্তরের পাঁচটি অঞ্চলে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী মারিও ড্রাঘির অফিস এই জরুরি অবস্থা জারি করে।

দেশটির মন্ত্রিসভা এমিলিয়া-রোমাগনা, ফ্রিউলি-ভেনিজিয়া গিউলিয়া, লোম্বার্ডি, পিডমন্ট এবং ভেনেটো অঞ্চলে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই জরুরি অবস্থা জারির আদেশে অনুমোদন করে। মঙ্গলবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা এই সংবাদ প্রকাশ করেছে।

সোমবার সরকারের পক্ষ থেকে এক বিবৃবিতে বলা হয়, খরায় বিপর্যস্ত মানুষকে সাহায্যের জন্য ৩৯ দশমিক ৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

ইতালিতে সাধারণত দেখা যায় না এমন আগাম তাপদাহ মোকাবিলা করছে এখন। দেশটিতে বৃষ্টি হচ্ছে না, বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলীয় কৃষিপ্রধান পো উপত্যকায় তাপদাহের তীব্রতা বেশি। যার ফলে এই উপত্যকায় কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ খরা দেখা দেয়।

জরুরি অবস্থা জনসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিত, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ এবং আক্রান্ত অঞ্চলের মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার নিশ্চয়তায় সাহায্যের জন্য ‘বিশেষ ব্যবস্থা এবং ক্ষমতা’ প্রদান করে।

দেশটির বৃহত্তম কৃষি ইউনিয়ন কোল্ডিরেটির মতে, এই খরায় জাতীয় কৃষিজ উৎপাদনের ৩০ শতাংশের বেশি এবং পো উপত্যকার অর্ধেক ফার্ম হুমকির মুখে পড়েছে। এখানকার পশু খামার থেকেই দেশটির প্রয়োজনীয় মাংস উৎপদান হয়। পো দেশটির বৃহত্তম জলাধার বা পানির উৎস। কৃষকরা ধান চাষ, খামারের ক্ষেত এবং গরুর চারণভূমিতে সেচ দেওয়ার জন্য ব্যাপকভাবে এই জলাধার ব্যবহার করেন।

এদিকে মিলানের কাছে লোম্বার্ডি ও পিডমন্ট অঞ্চলের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত ম্যাজিউর ও গার্দা লেকও খরার কবলে পড়েছে এবং বছরের এই সময়ে পানির স্তর নিচে নেমে গেছে। অন্যদিকে আরও দক্ষিণের তিবার নদী যেটি রোমের মধ্য দিয়ে বয়ে গেছে তার পানির স্তরও নিচে নেমে গেছে।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/০৫ জুলাই ২০২২

Back to top button