জাতীয়

কমছে সব নদীর পানি

ঢাকা, ২৬ জুন – কমতে শুরু করেছে দেশের প্রায় সব নদীর পানি। তিস্তা ছাড়া সব নদীর পানি কমা অব্যাহত থাকতে পারে। ভারতের কয়েকটি এলাকার ছাড়া ভারী বৃষ্টিও নেই কোনও অঞ্চলে। ওই বৃষ্টির ফলে তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার কাছাকাছি চলে আসতে পারে। এছাড়া আগামী ২৪ ঘন্টায় সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের বেশিরভাগ অঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি অব্যাহত থাকতে পারে। তবে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলার কিছু এলাকা নতুন করে প্লাবিত হতে পারে।

এদিকে আজ দেশের ৬ নদীর ৭ পয়েন্টের পানি বিপৎসীমার ওপরে আছে। গতকাল ৭ নদীর ৯ পয়েন্টের পানি বিপৎসীমার ওপরে ছিল। সে হিসেবে প্রায় সব এলাকার পানি কমতে শুরু করেছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাস অনুযায়ী, দেশের সকল প্রধান নদনদীর পানি কমছে। আগামী ৪৮ ঘন্টায় ব্রহ্মপুত্র যমুনা, গঙ্গা পদ্মা এবং দেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলের সকল প্রধান নদনদীর পানি কমা অব্যাহত থাকতে পারে। অপরদিকে আগামী ২৪ ঘন্টায় দেশের উত্তরাঞ্চলের ধরলা ও দুধকুমার নদীর পানি কমা অব্যাহত থাকতে পারে। আগামী ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টায়, ভারতের হিমালয় পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি, সিকিমে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। এর ফলে ওই সময়ে তিস্তা নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পেয়ে ডালিয়া পয়েন্টে বিপৎসীমার কাছাকাছি অবস্থান করতে পারে। আগামী ২৪ ঘন্টায় দেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলের সিলেট, সুনামগঞ্জ নেত্রকোনা কিশোরগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি অব্যাহত থাকতে পারে।

আগামী ২৪ ঘন্টায় শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলার নিম্নাঞ্চলে স্বল্পমেয়াদী বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

কেন্দ্র জানায়, যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র নদীর সব পয়েন্টের পানি এখন বিপৎসীমার নিচে নেমে গেছে। এদিকে বাউলাই নদীর খালিয়াজুড়ি পয়েন্টের পানি ২৬ থেকে নেমে এখন ১৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। এছাড়া সুরমার নদীর দুই পয়েন্টের বদলে আজ এক পয়েন্টের পানি এখনও বিপৎসীমার ওপরেই আছে। এই নদীর কানাইঘাট পয়েন্টের পানি ৮৩ থেকে কমে ৭৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। এদিকে কুশিয়ারার নদীর অমলশীদ পয়েন্টের পানি ১৭৯ থেকে কমে ১৬৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে, মারকুলি পয়েন্টের পানি বিপৎসীমার নিচে নেমেছে, নতুন করে শেওলা পয়েন্টের পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে।

এছাড়া পুরাতন সুরমার দেরাই পয়েন্টের পানি ৪১ থেকে নেমে ৩০, সোমেশ্বরী নদীর কলমাকান্দা পয়েন্টের পানি ৪১ থেকে কমে ৩৯ এবং তিতাস নদীর ব্রাহ্মণবাড়িয়া পয়েন্টের পানি বিপৎসীমার ২৯ থেকে কমে ২৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে।

বৃষ্টিপাতের বিষয়ে বলা হয়, গত ২৪ ঘন্টায় ভারতের অরুণাচলে ৫৯ এবং চেরাপুঞ্জিতে ৫৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
এম ইউ/২৬ জুন ২০২২

Back to top button