ইউরোপ

সেই রাসায়নিক কারখানাও রাশিয়ার দখলে

কিয়েভ, ২৫ জুন – ইউক্রেনের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ লুহানস্ক অঞ্চলের সেভেরোদোনেৎস্ক শহরে অবস্থিত আজত রাসায়নিক কারখানা দখলে নিয়েছে রাশিয়া। মস্কোপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

মস্কোপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীরা জানান, রুশ ও রাশিয়াপন্থী বাহিনী সেভেরোদোনেৎস্ক শহরে অবস্থিত আজত রাসায়নিক কারখানার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে এবং সেখানে আশ্রয় নেওয়া আট শতাধিক বেসামরিক নাগরিককে ‘সরিয়ে’ নেওয়া হয়েছে।

রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দ্রেই মারাচকো টেলিগ্রাম অ্যাপে জানান, রাশিয়া ও মিত্র বাহিনী ‘আজত প্ল্যান্ট ইন্ডাস্ট্রিয়াল জোনের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে’।

আরেক বিচ্ছিন্নতাবাদী মুখপাত্র ইভান ফিলিপোনেঙ্কো বলেন, কয়েক সপ্তাহের লড়াইয়ের সময় প্ল্যান্টে আশ্রয় নেওয়া প্রায় আট শতাধিক বেসামরিক মানুষকে ‘সরিয়ে’ নেওয়া হয়েছে।

এদিকে, সেভেরোদোনেৎস্ক শহরটি রাশিয়ান বাহিনী পুরোপুরি দখল করে নিয়েছে বলে জানিয়েছেন সেখানকার মেয়র মেয়র অলেক্সান্ডার স্ট্রিউক।

অলেক্সান্ডার স্ট্রিউক ইউক্রেনের জাতীয় টেলিভিশনে বলেন, শহরটি এখন রাশিয়ার সম্পূর্ণ দখলে। তারা শহরটিতে তাদের নিজস্ব নিয়ম প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে। আমি যতদূর জানি তারা এক ধরনের কমান্ড্যান্ট নিয়োগ করেছে।

লুহানস্কের গভর্নর সেরহি হাইদাই আরও জানান, রুশ বাহিনীর অব্যাহত বোমা হামলার কারণে সেভেরোদোনেৎস্ক পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়ার পথে।

শহরের ৯০ শতাংশ ইতোমধ্যে ধ্বংস হয়ে গেছে। শহরের যেসব ভবন বা ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার ৮০ শতাংশ ভেঙে ফেলতে হবে।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/২৫ জুন ২০২২

Back to top button