ক্রিকেট

উইন্ডিজকে দ্রুত অলআউটের লক্ষ্যে দ্বিতীয় দিনের লড়াইয়ে বাংলাদেশ

সেন্ট লুসিয়া, ২৫ জুন – সেন্ট লুসিয়া টেস্টের দ্বিতীয় দিন শনিবার (২৫ জুন) মাঠে নেমেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ২৩৪ রানের জবাবে ব্যাট করছে উইন্ডিজ। ৬৭ রানে তারা দিন শুরু করে। ১৬৭ রানে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। ক্রিজে আছেন ক্যাম্পবেল (৩২) ও ব্র্যাথওয়েট (৩০)। সাকিব আল হাসানের দলের লক্ষ্য উইন্ডিজের রান আটকে দ্রুত উইকেট নেওয়া।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ২৩৪/১০ (৬৪.১ ওভার)।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৬৭/০ (১৬ ওভার)।

ব্যাকফুটে বাংলাদেশ

প্রথম দিন আড়াইশর নিচে (২৩৪) রানে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। ফিল্ডিংয়ে নেমে আঁটসাঁট বোলিংয়ই করতে পারেনি, উইকেটতো দূরের কথা। ১৬৭ রান পিছিয়ে থেকে দিন শুরু করলেও কোনো উইকেট না হারানোয় এগিয়ে আছে স্বাগতিকরা। ব্যাকফুটে বাংলাদেশ।

তামিম ইকবালের মতে, ‘যেহেতু ওদের উইকেট পড়েনি প্রথম দিনটা তাদেরই। যদি আমরা ১-২টা উইকেট নিতে পারতাম তাহলে বলতে পারতাম ভাগাভাগি করছি। এই মুহূর্তে তারা এগিয়ে আছে। কাল আমরা কিভাবে শুরু করি সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

তামিমের আক্ষেপ

প্রথম দিন শেষে দলীয় স্কোর কম হওয়াতে আক্ষেপ করছেন তামিম ইকবাল। এ ছাড়াও আছে ফিল্ডিংয়ে নেমে বেশি রান দেওয়ার আক্ষেপ, ‘আমাদের আরও ভালো ব্যাটিং করা উচিত ছিল। আমরা যদি তিনশর কাছাকাছি বা তিনশ বিশ করতাম তাহলে খুব ভালো স্কোর হতো। কারণ, উইকেট কিছুটা আপ অ্যান্ড ডাউন হচ্ছে। বোলিং আমার কাছে মনে হচ্ছে, ২৫-৩০ রান কম দিতাম তাহলে ভালো হতো।’

প্রথম দিনের চিত্র

টেল এন্ডারদের দারুণ ব্যাটিংয়ে আশা জাগিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু দিনের শেষভাগে বাংলাদেশি বোলাররা নির্বিষ ছিলেন। দিনশেষে কোনো উইকেট না হারিয়ে উইন্ডিজের রান ৬৭। বাংলাদেশ এখনো এগিয়ে আছে ১৬৭ রানে। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশ ২৩৪ রান করে। টেল এন্ডারদের দৃঢ়তায় বাংলাদেশ দুইশ পার করে। শরিফুল ২৬ রান করেন আর এবাদত ২১ রানে অপরাজিত থাকেন। সর্বোচ্চ ৫৩ করেন লিটন দাস।

কেমার রোচকে এই ইনিংসে উইকেট দেয়নি বাংলাদেশ। সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন সিলস-জোসেফ। ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ শুরু করে উইন্ডিজের দুই ওপেনার। খালেদের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বল ছাড়া উইকেটের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি বাংলাদেশ। ক্যাম্পবেল ৩২ ও ব্র্যাথওয়েট ৩০ রানে অপরাজিত ছিলেন। সাকিব-মিরাজ ও খালেদরা ছিলেন খরুচে। অন্যদিকে ইবাদত-শরিফুল কৃপণ হলেও উইকেটের দেখা পাননি।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ২৫ জুন

Back to top button