ইউরোপ

পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারালো ম্যাক্রোঁর জোট

প্য়ারিস, ২০ জুন – ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে টানা দ্বিতীয় বার জয়ী হলেও বাম জোট ও ডানপন্থীদের শক্তিশালী কার্যক্রমের কারণে জাতীয় পরিষদের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছেন ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, পার্লামেন্টে ভোটারদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিতে আহ্বান জানিয়েছিলেন ম্যাক্রোঁ।

কিন্তু তার মধ্যপন্থী জোট এ ভোটে কয়েক ডজন আসন হারিয়েছে। এ ফলাফল ফরাসি রাজনীতিকে খণ্ডিত করে দিয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে।
ভোটের ফলাফল- ম্যাক্রোঁর জোটের নাম এনসেম্বল পার্লামেন্টের ভোটে পেয়েছে ২৪৫টি আসন। ফ্রান্সের ৫৭৭ আসনের জাতীয় পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজন ২৮৯ আসন।

বামপন্থী ও গ্রিনদের নিয়ে গঠিত বামপন্থী নেতা জ্যঁ-লুক মেলেচোনের নিউ ইকোল্যজিক্যাল অ্যান্ড সোশ্যাল পপুলার ইউনিয়ন (এনইউপিইএস) জোট পেয়েছে ১৩১ আসন। অন্য বামপন্থী দলগুলো পেয়েছে ২২ আসন।

কট্টর ডানপন্থী মেরিন লঁ পেনের নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনাল র‌্যালির আসন বেড়েছে। তারা পেয়েছে ৮৯টি আসন। ডানপন্থী রিপাবলিকানস (ইউডিআই) পেয়েছে ৬৪ আসন।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এলিজাবেথ বোর্নকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারানোর পর প্রধানমন্ত্রী এ ফলাফলকে নজিরবিহীন বলে মন্তব্য করেন।

বিবিসি বলছে, ভোট নিয়ে প্রেসিডেন্টের এলিসি প্রাসাদে দীর্ঘসময় বৈঠক করেন এলিজাবেথ বোর্ন। সেখান থেকে ম্যাটিগননের নিজ বাসভবনে ফিরে বোর্ন বলেন, আধুনিক ফ্রান্স এমন জাতীয় সংসদ কখনও দেখেনি।

তিনি আরও বলেন, এ পরিস্থিতি আমাদের দেশে একটি ঝুঁকি নিয়ে এসেছে। আমরা জাতীয়, এমনকি আন্তর্জাতিকভাবে এ ঝুঁকি মোকাবিলা করছি। কাল থেকে আমরা কার্যকর সংখ্যাগরিষ্ঠতা গড়ে তুলতে কাজ শুরু করবো।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/২০ জুন ২০২২

Back to top button