অস্ট্রেলিয়া

৮০ লাখ অস্ট্রেলিয়ানকে ২ ঘণ্টা বিদ্যুৎ ব্যবহার না করার আহ্বান!

ক্য়ানবেরা, ১৬ জুন – তীব্র জ্বালানি সংকটের মুখে পড়ে অস্ট্রেলিয়ার জ্বালানিমন্ত্রী নিউ সাউথ ওয়েলস প্রদেশের বাসিন্দাদের প্রতি সন্ধ্যায় দুই ঘণ্টা তাদের বাড়ির বাতিগুলো নিভিয়ে রাখতে আহ্বান জানিয়েছেন। এই প্রদেশেই দেশটির বহত্তম শহর সিডনি অবস্থিত।

জ্বালানিমন্ত্রী ক্রিস বোয়েন বলেছেন, বাসিন্দারা যদি পারেন (বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী অন্যকিছুও করা যেতে পারে) তবে আপনাদের উচিত প্রতি সন্ধ্যায় দুই ঘণ্টা বিদ্যুৎ ব্যবহার না করা। তবে তিনি এও বলেছেন, এই বৈদ্যুতিক গোলযোগ এড়িয়ে যেতে পারবেন বলে তিনি আত্মবিশ্বাসী। বৃহস্পতিবার এই খবর দিয়েছে বিবিসি অনলাইন।

মূল্য বৃদ্ধির কারণে দেশটির প্রধান পাইকারি বিদ্যুতের বাজার স্থগিতের পরই এই আহ্বান জানালেন জ্বালানিমন্ত্রী। তিনি নিউ সাউথ ওয়েলসের বাসিন্দাদের যতটুকু সম্ভব বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের আহ্বান জানিয়েছেন।

ক্যানবেরায় অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নির্দিষ্ট কোনো কিছু চালানোর ব্যাপারে যদি আপনাদের পছন্দ থাকে, তাহলে ৬টা থেকে ৮টার (সন্ধ্যা) মধ্যে সেগুলো চালাবেন না।

অস্ট্রেলিয়া বিশ্বের বৃহত্তম কয়লা এবং তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানিকারক দেশ। তবে দেশটি গত মাস থেকে বিদ্যুৎ সংকটে আছে। দেশের এক তৃতীয়াংশ বিদ্যুৎ উৎপাদন হয় কয়লা ব্যবহার করে। নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে বিনিয়োগ করে কার্বন নিঃসরণ কমাতে যথেষ্ট পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে দেশটির বিরুদ্ধে অভিযোগ দীর্ঘদিনের।

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে দেশটি কয়লা সরবরাহে বিঘ্ন, বেশ কয়েকটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিভ্রাট এবং বৈশ্বিক জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির প্রভাবের মুখে পড়ে।

চলতি বছরের শুরুতে নিউ সাউথ ওয়েলস ও কুইন্সল্যান্ডের বেশকিছু কয়লা খনি বন্যার কবলে পড়ে। এ ছাড়া প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে দুটি খনির উৎপাদন বন্ধ, যেগুলো নিউ সাউথ ওয়েলসের সর্ববৃহৎ কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লা সরবরাহ করতো। বর্তমানে দেশের এক চতুর্থাংশ কয়লাচালিত বিদ্যুৎ কেন্দ্র অপ্রত্যাশিত গোলযোগ এবং রক্ষণাবেক্ষণ কাজের সূচি থাকার কারণে বিদ্যুৎ উৎপাদন করছে না।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১৬ জুন ২০২২

Back to top button