নাটক

ফারহান, তিশার শুটিংয়ে বহিরাগতদের হামলা

ঢাকা, ১৪ জুন – তানজিন তিশা ও মুশফিক আর ফারহানের শুটিং ইউনিট হামলার শিকার হয়েছে। সোমবার (১৩ জুন) টাংগাইলে এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে। এতে শুটিং ইউনিটের কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ‘ভিপি’ নামে একটি নাটক নির্মাণ করছেন মাহমুদ মাহিন। তাতে অভিনয় করছেন তিশা-ফারহান। এ নাটকের শুটিংয়ের জন্য টাংগাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং আশপাশের স্থানকে বেছে নেওয়া হয়। আর সেখানেই এ ঘটনা ঘটে।

পরিচালক মাহমুদ মাহিন বলেন—‘ঢাকার বাইরে শুটিংয়ে গেলে অনেক সময়ই এমন ঘটনা ঘটে। ভিড় সরাতে গিয়ে কথা-কাটাকাটি, হাতাহাতি হয়েছে। শুনেছি, এরা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউ নন। এটা আমাদের জন্য অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। আমরাও মর্মাহত। শুটিং বন্ধ রেখেছিলাম। পরে সব ঠিকঠাক। বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু বড় ভাই, নেতৃত্বস্থানীয় কয়েকজন তিন–চার দিন ধরে আমাদের সাহায্য করে আসছেন। গতকালও তারাই পাশে ছিলেন।’

জানা যায়, শুটিং ইউনিটের কয়েকজনের গায়ে হাত তোলা হয়েছে। কিন্তু এ তথ্য অতটা সিরিয়াস নয় বলে দাবি পরিচালকের। তিনি বলেন, ‘অতটা মারাত্মক কিছু নয়। ওই সময়ে শুটিং না থাকায় আমরা কিছুটা দূরে ছিলাম। পরে ঘটনা দেখতে পেয়ে এগিয়ে যাই। সবাই কাছাকাছি থাকায় তেমন কিছু হয়নি। তবে এই ঘটনার জন্য তারাও সরি বলেছেন।’

মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এমবিএসটিইউ’ নামে একটি ফেসবুক কমিউনিটি ঘটনাটি নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তাতে লেখা হয়েছে—‘আজ সন্ধ্যায় মাভাবিপ্রবিতে নাটকের শুটিং চলাকালে, শুটিংয়ের আশপাশে থাকতে দেয়া, না দেয়াকে কেন্দ্র করে নাটকের এক্সিকিউটিভ প্রোডিউসার সৌরভকে আক্রমণ ও মারধর করে পালিয়ে যায় বহিরাগতরা।’

এ বিষয়ে কথা বলতে ফারহানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে একটি গণমাধ্যমকে এ অভিনেতা বলেন—‘ওই সময় ঘটনাস্থলে ছিলাম না, পরে জেনেছি। তবে ঠিকঠাক হয়ে গেছে। কিছু লোক এর সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তারা পরে এসে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।’

এম এস, ১৪ জুন

Back to top button