ক্রিকেট

ফেরার মঞ্চে সাইফউদ্দিনের দৃষ্টি ২০২৩ বিশ্বকাপে

ঢাকা, ১২ জুন – সীমিত পরিসরে বাংলাদেশের যে পেস অলরাউন্ডারের অভাব ছিল, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন তা পূরণ করেছেন। নিজেকে মেলে ধরে দলে জায়গা পাকা করেছেন। পারফর্ম করেছেন আপন ছন্দে। কখনও সফল হয়েছেন, কখনও ব্যর্থ।

তবে ইনজুরি তাকে ভুগিয়েছে লম্বা সময়। তাতে জাতীয় দল থেকে ছিটকে গেছেন। অন্যরা সুযোগ পেয়ে এগিয়ে গেছেন। ডানহাতি পেস বোলিং অলরাউন্ডার পিছিয়ে গেলেও আলোচনায় ছিলেন সব সময়। তাইতো এবারের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তাকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

সব কিছু ঠিক থাকলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ হতে যাচ্ছে তার ফেরার মঞ্চ। প্রথমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়ার রোমাঞ্চ তাকে ছুঁয়ে যাচ্ছে। সেজন্য প্রস্তুতও হচ্ছেন রাত দিন। অবসরে ইউটিউবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিভিন্ন মাঠের খুটিনাটি জানছেন, মাঠে সেগুলো কাজে লাগানোর প্রত্যয় তার। রোববার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন সাইফউদ্দিন।

প্রস্তুতি কেমন হচ্ছে?

সাইফউদ্দিন: প্র্যাকটিস, রিহ্যাব, জিম সব কিছুই করছি। একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করছি। হয়তো স্কিল ট্রেনিং এখনও সেভাবে শুরু করিনি, ১৫ তারিখের পর শুরু করবো। আপাতত ফিটনেস, রিহ্যাব, জিম চালিয়ে যাচ্ছি।

ছোট ক্যারিয়ারে বারবার ইনজুরির কারণে বিরতি পড়ছে…

সাইফউদ্দিন: প্রতিটা মানুষের জীবনেই বিরতি থাকে। ঢাকাতে যদি গাড়ি চালান, একই গতিতে গাড়ি চালাতে পারবেন না। ব্রেক দিতেই হবে। যারা অনেক ভাগ্যবান, তারা ইনজুরি ছাড়া অনেক দিন খেলে যেতে পারে। বেশিরভাগ পেস বোলারের ক্ষেত্রেই এমন হয়ে থাকে। জানি না আবার কয়দিন খেলতে পারবো। পারফরম্যান্স ও ইনজুরির ব্যাপার আছে। চেষ্টা করছি (ভালো করার), কী হবে তা কারও হাতে নেই।

বিরতি পড়ায় বেশি কষ্ট হচ্ছে কি না?

সাইফউদ্দিন: কিছুটা দুর্ভাগ্য তো বটেই। হয়তো আর পাঁচজন পেস বোলারের চেয়ে আমি কিছুটা দুর্ভাগা। কিন্তু এটা জীবনেরই অংশ। এটা মেনে নিয়েই চলতে হবে।

নিজেকে নিয়ে এখন কি আত্মবিশ্বাসী?

সাইফউদ্দিন: এতদিন কিছুটা দ্বিধান্বিত ছিলাম যে আমার ভেতরে কিছু আছে কি না। কিন্তু যখন ইংল্যান্ডে গেলাম, বিসিবির অধীনে স্ক্যান করানোর জন্য। স্ক্যানে জানতে পারলাম আমার কিছু হয়নি। তাই কিছুটা আত্মবিশ্বাস নিয়ে বোলিং করছি এখন। কিন্তু জানি না কতদিন সুস্থ থাকতে পারবো। চেষ্টা করছি যতদিন পারা যায় খেলতে। সামনে ২০২৩ বিশ্বকাপ আছে, তো আমার পারফরম্যান্সের পাশাপাশি সুস্থ থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ নিজের জন্য।

ওয়েস্ট ইন্ডিজে উইকেট নিয়ে ধারণা…

সাইফউদ্দিন: ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর আমার জন্য প্রথম। ক্রিকেট খেলুড়ে সবগুলো দেশে আমি গিয়েছি, ওয়েস্ট ইন্ডিজে এবারই আমার প্রথম। হয়তোবা ওই কন্ডিশন বা উইকেট আমার জানা নেই। তারপরও যেহেতু ইউটিউবের যুগ, বিভিন্ন ম্যাচগুলোর হাইলাইটস দেখছি আসলে কত স্কোরিং হতে পারে। যেসব টি টোয়েন্টি ম্যাচগুলা ওরা খেলেছে, যেহেতু আমার জন্য আগে টি-টোয়েন্টি, তো এটা আমি দেখছি। যতটা ধারণা নেওয়া যায় ম্যাচগুলো দেখে, নিচ্ছি।

কোনো লক্ষ্য ঠিক করেছেন?

সাইফউদ্দিন: আপাতত কোনো লক্ষ্য ঠিক করিনি। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে ওদের সঙ্গে খেলেছি। দেশের মাটিতে অনেকগুলো ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলেছি। তাই ওদের সাথে খেলার কিছু অভিজ্ঞতা আছে। যদিও ওদের কন্ডিশনে খেলা, যদি সুযোগ পাই এবার প্রথম খেলবো। ভালো জায়গায় বল করলে ব্যাটসম্যানরা সবসময় সমীহ করে। খারাপ বলে সবাই বাউন্ডারি মারবে। আবার আমি ব্যাটিংয়ের সময় লুজ বলের অপেক্ষা করি। সব জায়গায় ভালো লাইন-লেন্থ রেখে বল করলে ভালো করা সম্ভব। কন্ডিশন বড় বিষয় নয়।

নিজের বোলিং নিয়ে কতটা আত্মবিশ্বাসী?

সাইফউদ্দিন: প্রিমিয়ার লিগের পর লম্বা বিরতি ছিল। বিশ্বকাপের পর টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলিনি। প্রস্তুতির জন্য রাজশাহী গিয়ে একটা ম্যাচ খেলেছি। এটা টি-টোয়েন্টির সাথে মানিয়ে নেওয়ার জন্য। বিগত কয়েক সিরিজে পেস বোলাররা ভালো ছন্দে আছে। এটা দেশের জন্য ইতিবাচক। ইনশাআল্লাহ আমিও চেষ্টা করবো সেরাটা দিয়ে দলে জায়গা করে নেওয়ার।

ওয়ানডেতে কে ফেভারিট?

সাইফউদ্দিন: আমরা টেস্ট ও টি-টোয়েন্টির চেয়ে ওয়ানডে বরাবরই ভালো খেলে আসছি। সবাই আত্মবিশ্বাসী থাকে এই ফরম্যাটে। আসলে ফেভারিট বলে কিছু নেই। যার দিন ভালো যাবে সেই জিতবে। যেহেতু ওদের কন্ডিশনে খেলা কিছু সুবিধা তো পাবে। ওদের মাটিতে আগেও ওয়ানডে সিরিজ হারিয়েছি। সেদিক থেকে আমরা ফেভারিট।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ১২ জুন

Back to top button