উত্তর আমেরিকা

অস্ত্র আইন আরো কঠোর করতে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভ

ওয়াশিংটন, ১২ জুন – ‘বন্দুক হামলা থেকে মুক্তি চাই’ এমন স্লোগানকে সামনে রেখে অস্ত্র আইন কঠোর করার দাবি জানিয়ে রাজপথে নেমেছেন যুক্তরাষ্ট্রের লাখ লাখ মানুষ। সম্প্রতি টেক্সাস ও নিউ ইয়র্কে বড় দুটি বন্দুক হামলায় হতাহতের ঘটনায় অস্ত্র আইন কঠোরের দাবি উঠেছে দেশজুড়ে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রে একের পর এক বন্দুক হামলার ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে দেশটির বহু মানুষ। তাই তো এবার অস্ত্র আইন কঠোর করার সময় এসেছে। সেই দাবিতেই স্থানীয় সময় শনিবার ওয়াশিংটন ডিসিসহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন জায়গায় রাজপথে নামতে বাধ্য হয়েছেন লাখো মানুষ।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, আর দেরি নয়, এখনই আইনটি বাস্তবায়নের সময়।

এদিকে রাজপথের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে কংগ্রেসকে বন্দুক সুরক্ষা আইন পাসের আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

তবে এতকিছুর পরও রিপাবলিকানদের আপত্তি থাকায় দেশটিতে অস্ত্র আইন কঠোর হওয়ার সম্ভাবনা কম। গত মাসে টেক্সাস ও নিউ ইয়র্কের বাফেলোতে দুটি ম্যাস শুটিংয়ের ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র আইন কঠোর করার আলোচনাকে ফের সামনে নিয়ে এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে নাগরিকদের অস্ত্র বহনের অধিকার দেয়া হয়েছে। দেশটিতে গত কয়েক বছরে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে সামান্য কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হলেও তা যে ম্যাস শুটিং বন্ধে কার্যকর নয়, মাস দুয়েকের মধ্যে একাধিক ম্যাস শুটিংয়ে কয়েক ডজন নিহতই তার প্রমাণ।

শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের মার্চ ফর আওয়ার লাইভস (এমএফওএল) জানায়, অস্ত্র আইন কঠোর করতে ওয়াশিংটন ডিসি, নিউ ইয়র্ক, লস এঞ্জেলেস ও শিকাগোসহ যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে প্রায় সাড়ে চারশ বিক্ষোভের আয়োজন করে তারা।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/১২ জুন ২০২২

Back to top button