বলিউড

জেরার সময় তদন্তকারী অফিসারকে যা বলেছিলেন শাহরুখপুত্র

মুম্বাই, ১১ জুন – মাদক মামলা থেকে বেশ কয়েক দিন আগেই মুক্তি পেয়েছেন শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। আরিয়ানের মাদককাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগের পর থেকেই মুখ বন্ধ রেখেছেন বলিউড কিং ও তার পরিবার।

গত বছরের ২ অক্টোবর মুম্বাই উপকূলে প্রমোদতরী থেকে আরিয়ানসহ তার বন্ধুদের গ্রেফতার করে এনসিবি। প্রায় এক মাস জেলে থাকার পর জামিনে ছাড়া পান আরিয়ান খান। যদিও গত মাসেই এনসিবির পক্ষ থেকে ক্লিনচিট দেওয়া হয়েছে আরিয়ানকে। কোর্ডেলিয়া ক্রুজ মাদক মামলায় দাখিল চার্জশিটে নাম নেই আরিয়ান খানের।

আরিয়ানকে জেরা করার সময়ের কিছু কথোপকথন জানিয়েছেন ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিস (আইপিএস) কর্মকর্তা সঞ্জয় সিং।

সঞ্জয় জানিয়েছেন, জেরার সময় আরিয়ান তাকে বলেন, স্যার, আপনি আমাকে একজন আন্তর্জাতিক মাদক পাচারকারী হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। বলা হচ্ছে, আমি মাদক পাচার করে টাকা রোজগার করি। এটা কি ভিত্তিহীন নয়?

আরিয়ান বলেছিলেন, ওরা (মুম্বাই উপকূলে প্রমোদতরী থেকে আরিয়ানকে গ্রেফতার করা নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো বা এনসিবি) আমার কাছে কোনো মাদক খুঁজে পায়নি। তবুও সেদিন আমাকে গ্রেফতার করা হলো।

সঞ্জয়ের দাবি, আরিয়ানের কিছু কথা তাকে অবাক করেছিল। আরিয়ান সরাসরি তাকে বলেছিলেন, স্যার, আপনি আমার সঙ্গে অন্যায় করেছেন। আমার সুনাম নষ্ট করেছেন। কেন আমাকে এত সপ্তাহ জেলে কাটাতে হলো? সত্যিই কি আমার এটা প্রাপ্য ছিল?

ইন্ডিয়া টুডেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এনসিবির ডেপুটি ডিরেক্টর (অপারেশন) সঞ্জয় সিং জানান, ছেলের মানসিক এবং শারীরিক সুস্থতা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন শাহরুখ। বলিউড সুপারস্টার অনুরোধ জানিয়েছিলেন, আরিয়ানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার ও গোটা রাত ছেলের সঙ্গে থাকার। যদিও অনুমতি মেলেনি। শাহরুখ সেই সময় জানান, কোনো রকম প্রমাণ ছাড়াই আরিয়ানকে দোষারোপ করা হচ্ছে।

সঞ্জয় আরও বলেন , শাহরুখও তদন্তের সময় তার সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তদন্ত চলার সময় অভিযুক্তের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করলে সেটা আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়। তাই তিনি দেখা করেননি।

সূত্র : যুগান্তর
এম এস, ১১ জুন

Back to top button