জাতীয়

‘সীতাকুণ্ডের ঘটনায় কারো গাফিলতি থাকলে ব্যবস্থা’

গাজীপুর, ১০ জুন – চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, এ ঘটনায় কারো গাফালতি আছে কি না সেটি বের করতে উচ্চ পর্যায়ের দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। মামলাও করা হয়েছে। তদন্তে যারা দোষী সাব্যস্ত হবেন, যাদের গাফিলতি পাবো তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, তারা যদি ইচ্ছাকৃত কিছু করে থাকেন অবশ্যই তারা সে অনুযায়ী শাস্তি পাবেন। তবে তদন্তের আগে কে দোষী কে নির্দোষী আমরা বলছি না। আমরা মনে করি এটা তদন্তের পরেই সবকিছু পাবো। সে অনুযায়ী বিচার কার্যক্রম চলবে।

শুক্রবার (১০ জুন) সকালে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে নবনিযুক্ত ব্যাটালিয়ন আনসারের (২২তম ব্যাচ-পুরুষ) মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আগে ফায়ার সার্ভিস ঘণ্টা বাজিয়ে বাজিয়ে আগুন নেভার পর ঘটনাস্থলে যেতো। পরবর্তী সময়ে আমরা প্রতিটি উপজেলায় একটি করে ফায়ার স্টেশন করেছি। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের প্রশিক্ষণ, দক্ষতা ও সময়োপযোগী যন্ত্রপাতি এনে দিয়েছি। বসুন্ধরায় আগুন লেগেছিল, আমরা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দৃশ্য দেখা ছাড়া উপায় ছিল না। তখন ছয়তলার ওপর আমাদের মই ছিল না, কিন্তু এখন সেটা ২২ তলায় পৌঁছায়।’

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

৪৪২ জন নবনিযুক্ত ব্যাটালিয়ন আনসার ছয়মাস মেয়াদি মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে সমাপনী কুচাকাওয়াজে অংশ নেন। কুচাকাওয়াজের শুরুতে প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান একটি সুসজ্জিত খোলা জিপে চড়ে প্যারেড পরিদর্শন করেন।

পরে প্রধান অতিথি কৃতী ও চৌকস প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করেন। এবার মৌলিক প্রশিক্ষণে সাগর আলী শ্রেষ্ঠ ড্রিল, শরিফুল ইসলাম শ্রেষ্ঠ ফায়ারার এবং মো. গুলজার আলী চৌকস প্রশিক্ষণার্থী ব্যাটালিয়ন আনসার হিসেবে প্রথম স্থান অধিকার করেন।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/১০ জুন ২০২২

Back to top button